স্বাস্থ্যকথা

ডায়াবেটিস থাকলে রোজা রাখবেন যেভাবে!

  

পিএনএস ডেস্ক:রমজান মাস শুরু হয়েছে। মুসলমানদের কাছে অবশ্য পালনীয় রোজা যেমন গুরুত্বপূর্ণ, তেমনি ডায়াবেটিসের মতো রোগে আক্রান্ত ব্যক্তিদের স্বাস্থ্য ঠিক রাখাও জরুরি। কারণ ডায়াবেটিসে আক্রান্ত ব্যক্তিদের নিয়ম মেনে ও সময় মতো খাবার খেতে হয়। সেইসঙ্গে দিনের বিভিন্ন সময় তাদের ওষুধ নেয়ার দরকার হয়। ফলে সেহরি এবং ইফতারের মধ্যে দীর্ঘসময় না খেয়ে থাকার প্রভাব পড়তে পারে তাদের শরীরে। বাড়তে পারে স্বাস্থ্যঝুঁকি।রমজান মাসে ডায়াবেটিসে আক্রান্ত একজন প্রাপ্তবয়স্ক ব্যক্তির রোজা রাখার ক্ষেত্রে কী কী

রোজায় শরীরে যেসব পরিবর্তন ঘটে

  

পিএনএস ডেস্ক: সিয়াম সাধনার মাস রমজান। বিশ্বজুড়ে রোজা রাখছেন ধর্মপ্রাণ মুসলমানরা। দীর্ঘ এক মাস রোজা থাকার কারণে রোজাদারের শরীরে বেশ কিছু পরিবর্তন ঘটে। রোজার শুরুর দিনগুলো একটু কষ্টের। সাহরি খাওয়ার অন্তত আট ঘণ্টা পর্যন্ত শরীরে সেই অর্থে রোজার প্রভাব পড়ে না।আমরা যে খাবার খাই, পাকস্থলীতে তা পুরোপুরি হজম হতে এবং এর পুষ্টি শোষণ করতে অন্তত আট ঘণ্টা সময় নেয় শরীর। যখন এই খাদ্য পুরোপুরি হজম হয়ে যায়, তখন শরীর যকৃৎ এবং মাংসপেশীতে সঞ্চিত গ্লুকোজ থেকে শক্তি শুষে নেওয়ার চেষ্টা করে।শরীর যখন এই

রোজায় যেসব খাবার খাবেন না

  

পিএনএস ডেস্ক: সংযমের মাস রমজান। এই মাসে সবকিছুর পাশাপাশি সংযমী হতে হবে খাদ্যতালিকায় তৈরিতেও। অর্থাৎ খুব ভারী আর মশলাদার খাবার যেমন খাওয়া যাবে না, তেমনি দূরে থাকতে হবে ভাজাপোড়া জাতীয় খাবার থেকেও। এসময়ে আমাদের খাদ্যাভাসে বড় পরিবর্তন আসে তাই তাই স্বাস্থ্য নিয়ে কিছুটা জটিলতা হতে পারে। তবে খাদ্য ও স্বাস্থ্য সম্পর্কে সচেতন থাকলে এসব সমস্যা এড়িয়ে চলা সম্ভব।যেসব সমস্যা হতে পারে :অতিরিক্ত ভাজাপোড়া জিনিস খাওয়া, পানি কম খাওয়া এবং খাবার মেনুতে আঁশযুক্ত খাবার না রাখলে কোষ্ঠ কাঠিন্য হতে

ঝটপট ইফতার চটপট তৈরি

  

পিএনএস ডেস্ক: পবিত্র মাহে রমজান শুরু হয়েছে। সারাদিন রোজা রাখার পর সন্ধ্যায় পরিবারের সবাইকে নিয়ে ইফতার করা এ মাসের প্রতিদিনের অনুষঙ্গ। সারাদিন উপবাসে থাকার পর আমরা যেই ইফতার খাচ্ছি, সেটি অবশ্যই স্বাস্থ্যসম্মত হওয়া উচিত। পরিবারের বয়স্ক মানুষ আর ছোট বাচ্চাদের কথা চিন্তা করেই ইফতার তৈরি করা উচিত। এখানে অবশ্য এমন কিছু ইফতার আইটেমের রেসিপি দেওয়া হয়েছে যা অল্পসময়ে ঝটপট তৈরি করা সম্ভব। প্রায় প্রতি ঘরেই এইসব আইটেম দিয়ে ইফতার করা হয়, স্বাস্থ্যসম্মত প্রণালী দেওয়া হলো নিচে।ছোলা

ডায়াবেটিস নিয়ন্ত্রণে পান করুন করলার চা!

  

পিএনএস ডেস্ক: করলা আমাদের প্রিয় খাদ্য না হতে পারে, কিন্তু এর পুষ্টিগুণ সম্পর্কে আমরা সকলেই জানি। বিভিন্ন স্মুদি ও সবজির জুসের পুষ্টিগুণ বৃদ্ধির জন্য করলা মেশানো হয়ে থাকে। এটি রক্তে সুগারের মাত্রা নিয়ন্ত্রণে সাহায্য করে, লিভার পরিষ্কার করে, ওজন নিয়ন্ত্রণেও সাহায্য করে এই করলা। করলার উপকারিতা লাভের আরও একটি উপায় হল করলার তেতো চা পান করা।জেনে নিন করলার তেতো চায়ের পুষ্টিগুণ:শুকনো করলার টুকরাকে পানিতে ভিজিয়ে রেখে এই তিতা চা তৈরি হয় এবং ওষুধ হিসেবে বিক্রি হয়। এটি গুঁড়া বা নির্যাস হিসেবেও

ইফতারে খান বেলের শরবত

  

পিএনএস ডেস্ক: ইফতারে খেজুর থাকার মতো শরবতও একটি আবশ্যিক খাবার। নানা শরবতের ভিড়ে ইফতারে খেতে পারেন বেলের শরবত। বেলের শরবত যেমন সুস্বাদু তেমন গুণেও ভরপুর। তাই প্রতিদিনের ইফতারে রাখতে পারেন বেলের শরবত। যাদের হজমে সমস্যা আছে তাদের জন্য বেলের শরবত খুবই উপকারী। কাঁচা বেল ডায়রিয়ার রোগীদের জন্য বিশেষ ভাবে কাজ করে। এছাড়া বেল আমাশয় জন্ডিস, যক্ষ্মা, উচ্চ রক্তচাপের জন্যও বিশেষ উপকারী। বেলের শরবত তৈরি করবেন যেভাবে: প্রথমে চামচ বা চাকু দিয়ে বেলের শাঁস আলাদা করুন। এরপর তা পানিতে গুলিয়ে ফেলুন।

সারা দেশে খাবার স্যালাইনের সঙ্কট

  

পিএনএস ডেস্ক: সারা দেশেই খাবার স্যালাইনের সঙ্কট চলছে। গরমে অতিরিক্ত চাহিদা তৈরি হওয়ায় সেই অনুপাতে খাবার স্যালাইনের জোগান দিতে পারছে না সংশ্লিষ্ট কোম্পানিগুলো। বিশেষ করে রোজা শুরুর পর থেকেই এই সঙ্কট আরো তীব্র হয়েছে। এ ছাড়া গত কয়েক দিনের তীব্র তাপদাহের কারণেও খাবার স্যালাইনের এ সঙ্কট তৈরি হয়েছে বলে সংশ্লিষ্টরা জানিয়েছেন। গ্রামে কিংবা শহরে অনেক এলাকাতেই এখন খাবার স্যালাইনের এ সঙ্কট পরিলক্ষিত হচ্ছে।গতকাল বুধবার নগরীর বিভিন্ন ওষুধের বাজার ঘুরে দেখা গেছে সব দোকানেই কমবেশি খাবার স্যালাইনের সঙ্কট

কম দামি সানগ্লাসে যেসব ক্ষতি হয়

  

পিএনএস ডেস্ক: তীব্র রোদের কারণে গরমের মাত্রা বেড়েই চলেছে যেন। এই গরমে বাইরে বের হতে হলে যে জিনিসগুলো সঙ্গে রাখা আবশ্যক তার মধ্যে একটি হলো সানগ্লাস। রোদের তেজ যেন চোখের ক্ষতি না করতে পারে তাই এই বাড়তি সতর্কতা।শুধু কি রোদ, ধুলোবালি ও সূর্যের অতি বেগুনি আলোকরশ্মি থেকেও চোখকে বাঁচায় এই সানগ্লাস। সূর্যের অতিবেগুনি রশ্মি আমাদের চোখের রেটিনা ও কর্নিয়ার মারাত্মক ক্ষতি করে। তাই শুধুমাত্র ফ্যাশনের জন্যই নয়, চোখের সুরক্ষায়ও সানগ্লাস ভীষণ দরকারি।আমরা অনেকেই না বুঝে কিংবা স্টাইল হিসেবে কম দামি

প্রশ্নের মুখে ‘ফায়ার থেরাপি’!

  

পিএনএস ডেস্ক: মুখের বলিরেখা দূর করতে আর ত্বকে ট্যান আনতে ঘরে হোক বা পার্লারে গিয়ে রূপচর্চা করেন অনেকেই। কিন্তু রূপচর্চায় মুখে আগুন জ্বালানোর কথা ভেবেছেন কখনও! না, সরাসরি মুখের ত্বকে আগুন ধরিয়ে দেওয়া হচ্ছে না। প্রথমে মুখ ঢেকে দেওয়া হচ্ছে হালকা তোয়ালে দিয়ে, তারপর এই তোয়ালাতে আগুন লাগিয়ে দেওয়া হচ্ছে। কিছুক্ষণ পর আর একটি ভারি তোয়ালে দিয়ে চাপা দিয়ে এই আগুন নেভানো হচ্ছে। আগুন দিয়ে রূপচর্চার এই অদ্ভুত পদ্ধতির নাম ‘ফায়ার থেরাপি’ যা এখন রীতিমতো জনপ্রিয় ভিয়েতনামে।ভিয়েতনামের হো চি মিন সিটির প্রায়

মুরগির কলিজা যতটা উপকারী!

  

পিএনএস ডেস্ক :অনেকেই মুরগির কলিজা খেতে পছন্দ করেন। এদের কাছে মুরগির কলিজা নিশ্চয় সুস্বাদু লাগে। মুরগির কলিজা শুধু সুস্বাদুই নয়, এর রয়েছে নানা উপকারিতা। ১. মুরগির কলিজায় প্রচুর পরিমাণে ভিটামিন, ক্যালশিয়াম, আয়রন, ফাইবার রয়েছে। এসব উপাদান শরীরের জন্য খুবই উপকারী। ২. মুরগির কলিজায় দস্তা বা জিঙ্ক রয়েছে যা জ্বর, সর্দি-কাশি, টনসিলাইটিস সৃষ্টিকারী জীবাণুর বিরুদ্ধে শরীরে প্রতিরোধ ক্ষমতা গড়ে তুলতে সাহায্য করে।৩. মুরগির কলিজায় রয়েছে প্রচুর ভিটামিন-এ এবং বি যা আমাদের দৃষ্টিশক্তি ও

Developed by Diligent InfoTech