বোরো ধান কাটা ও মাড়াইয়ে ব্যস্ত কৃষক

  


পিএনএস ডেস্ক: চাঁপাইনবাবগঞ্জে এবার বারো ধান কাটা ও মাড়াইয়ে ব্যস্ত সময় পার করছেন কৃষকরা। চাঁপাইনবাবগঞ্জ সদর উপজেলা ও শিবগঞ্জ উপজেলার মহানন্দা ও পাগলা নদীর ২ তীরে হাজার হাজার বিঘায় সোনালি ধান বাতাসে দোল খাচ্ছে, যা দেখে কৃষকরা ভবিষ্যতের স্বপ্নে বিভোর হয়ে পড়েছেন।

করোনার কারণে শ্রমিক কম থাকলেও কম্বাইন হার্ভেস্টার মেশিন দিয়ে তা পুষিয়ে নেওয়ার চেষ্টা করছেন কৃষকরা। বিস্তীর্ণ মাঠ জুড়ে ধান কাটা শুরু হয়েছে ধান কাটা, পাশাপাশি চলছে মাড়াইয়ের কাজও। জেলা কৃষি সম্প্রসারণ অধিদপ্তর সূত্রে

জানা গেছে, এবার জেলায় ৪৭ হাজার ২৫০ হেক্টর জমিতে বোরো আবাদ হয়েছে। আর উৎপাদনের লক্ষ্যমাত্রা নির্ধারণ করা হয়েছে প্রায় পৌনে ৩ লক্ষ মেট্রিক টন। ইতিমধ্যে প্রায় ৪০ ভাগ জমিতে ধান কাটা হয়েছে। চলতি মৌসুমে নাচোল ও সদর উপজেলায় ৪ দফা বৃষ্টি ও ঝড়ের কারণে মাঠের ধান কিছুটা ক্ষতি হলেও কৃষকরা সেটা পুষিয়ে নিতে ধান কাটতে শুরু করেছেন।

বর্তমানে সদর উপজেলার হোসেনডাঙ্গা, আমনুরা, গোবরাতলা ইউনিয়নে ও গোমস্তাপুরে কৃষকরা ধান কাটতে ব্যস্ত কৃষাণ ও কৃষাণীরা। তবে নাচোল উপজেলায় কিছু কিছু জমিতে দেরিতে আবাদ হওয়ায় ১৫ দিন পর ধান কাটা শুরু হবে বলে জানান উপসহকারি কৃষি অফিসার বুলবুল আহমেদ।

এদিকে কৃষক শাহলাল ও সোহরাব আলী জানান, যদিও বৃষ্টি হয়েছে তাতে এবার বোরো ধানের তেমন ক্ষতি হবে না। কারণ এবার ধানের ফলন ভাল হয়েছে। এ মুহুর্তে প্রাকৃতিক দুর্র্যোগ না হলে এবারে বোরো ধানের উৎপাদনের লক্ষ্যমাত্রা ছাড়িয়ে যাবে।

জেলা কৃষি সম্প্রসারণ অধিদপ্তরের উপপরিচালক মো. নজরুল ইসলাম জানান, ইতিমধ্যে ৪০ ভাগ মাঠের ধান কাটা শেষ হয়েছে এবং আগামী ২০ দিনের মধ্যে বাকি ধান কাটা শেষ হবে। এ বছর পাকা ধান কাটার আগে কৃষকরা ঝড় বৃষ্টির কারণে কিছুটা ক্ষতির মুখে পড়লেও প্রভাব পড়েনি, কারণ ফলন ভাল হয়েছে।

পিএনএস/আনোয়ার

 

@PNSNews24.com

আপনার মন্তব্য প্রকাশ করুন