শ্যালিকাকে ধর্ষণের ভিডিও ইন্টারনেটে দেয়াই দুলাভাই গ্রেফতার

  

পিএনএস ডেস্ক:নারায়ণগঞ্জের বন্দরে শ্যালিকাকে ধর্ষণ করে সেই ভিডিও চিত্র ইন্টারনেটে ছড়িয়ে দেওয়ার অভিযোগে মুরাদ মিয়া (৩২) নামে এক ব্যক্তিকে গ্রেফতার করা হয়েছে।

সোমবার উপজেলার ঘারমোড়া কাজীপাড়া এলাকায় অভিযান চালিয়ে পুলিশ তাকে গ্রেফতার করে।

পুলিশ জানায়, বন্দর থানার ঘারমোড়া কাজীপাড়া এলাকার বজলুর রহমানের ছেলে মুরাদ মিয়া সাত বছর আগে কুমিল্লা জেলার দাউদকান্দী থানার পশ্চিম কাউয়াদী এলাকায় বিয়ে করেন। বিয়ের পর থেকে মুরাদ বিভিন্ন সময় শ্যালিকার সঙ্গে অশ্লীল আচরণ করতেন। মুরাদের সঙ্গে ঝগড়া হলে এক মাস পূর্বে তার স্ত্রী পাঁচ বছরের সন্তানকে নিয়ে বাপের বাড়ি চলে যান। এরপর গত ২৬ মে মুরাদ তার শ্যালিকাকে মোবাইলে ফোন করে জানান, তার ছেলের জন্য জামা কিনেছেন।

শ্যালিকা তার মা ও বাবাকে জানিয়ে কাপড় নিতে বন্দর বাসস্ট্যান্ড এলাকায় আসলে মুরাদ বন্দর কলাবাগ এলাকার একটি ভবনে নিয়ে তাকে ধর্ষণ করে। এরপর ধর্ষণের ভিডিওচিত্র ধারণ করে তা ইন্টারনেটে ছড়িয়ে দেন। ওই ঘটনার পর শ্যালিকাকে দু’দিন একটি ঘরে আটকেও রাখেন মুরাদ।

গত ২৮ মে মুরাদ ভয়ভীতি দেখিয়ে শ্যালিকাকে বিয়ে করেন। পরে ১৫ জুন শ্যালিকা কৌশলে ওই বাড়ি থেকে পালিয়ে যান এবং বিষয়টি তার মা-বাবাকে জানান। পরে ঘটনাটি পুলিশকে জানানো হলে বন্দর থানা-পুলিশ অভিযান চালিয়ে মুরাদকে গ্রেফতার করে।

বন্দর থানার ওসি আবু কালাম বলেন, ধর্ষণের শিকার হওয়া মেয়েটি বাদী হয়ে নারী ও শিশু নির্যাতন আইন এবং তথ্যপ্রযুক্তি আইনে মামলা করেছেন। তার দুলাভাইকে গ্রেফতার করা হয়েছে।


পিএনএস/আলআমীন

 

@PNSNews24.com

আপনার মন্তব্য প্রকাশ করুন
Developed by Diligent InfoTech