বেনাপোলে প্রায় ৩কেজি ওজনের ১১টি স্বর্নের বার সহ নারী আটক

  

পিএনএস ,বেনাপোল: আন্তর্জাতিক চেকপোষ্ট বেনাপোল দিয়ে ভারতে পাচারকালে ৪দিনের ব্যাবধানে ৩টি স্বর্নের চালান আটক করেছে কাষ্টম শুল্ক গোয়েন্দা সদস্যরা। শনিবার সকালে বেনাপোল চেকপোষ্ট এলাকা থেকে সন্দেহজন ভাবে আটক করা হয় ঢাকা-ওয়ারী মুদগা এলাকার আবুল হোসেনের মেয়ে রুকসানা খাতুন ও আকতার হোসেনকে। পরে রুকসানার শরীরের বিশেষস্থান থেকে উদ্ধার করা হয় ১কোটি ৪০লাখ টাকা মূল্যের ১১টি স্বর্নের বার। যার ওজন২কেজি সাড়ে ৭শ গ্রাম বলে জানায় কাষ্টম। ইমিগ্রেশন ও কাষ্টমসের কাজ শেষে ভারতে প্রবেশকালে আটক হয় বারগুলো।

এর আগে বুধবার সকালে ৭টি স্বর্নের বার ও শুক্রবার সকালে ৫টি স্বর্নের বার সহ দুই পাচারকারীকে আটক করে কাষ্টম।

বেনাপোল কাষ্টম সহ কমিশনার আব্দুস সাদিক জানান,গোপন সংবাদের ভিত্তিতে জানতে পারেন শনিবার সকালে বেনাপোল কাষ্টম চেকপোষ্ট দিয়ে ভারতে একটি বড় সোনার চালান ভারতে পাচার হচ্ছে জানতে পেরে সন্দেহভাজন দুইজনকে আটক কাষ্টম শুল্ক গোয়েন্দা সদস্যরা। পরে পাসপোর্ট ধারী নারী যাত্রীর কাছ থেকে১১টি স্বর্নের বার জব্দ করা হয়। যার ওজন ২কেজি সাড়ে ৭শ গ্রাম বলে জানান তিনি।

আটক সোনা পাচারকারীকে বেনাপোল পোর্ট থানায় সোপর্দসহ সোনা শুল্ক ষ্টেশনে জমা দেওয়া হবে বলে জানায় কাষ্টম। তবে অভিযুক্ত আকতার হোসেনকে তল্লাশি শেষে কিছু পাওয়া না গেলে ছেড়ে দেওয়া হতে পারে বলে জানান ঐ কর্মকর্তা।

উল্লেখ্য কাষ্টম তল্লাশি কেন্দ্রে স্কানার থাকা সত্বেও কোন সোনা অস্ত্র মাদকের চালান আটক করতে পারেনি কাষ্টম সদস্যরা। প্রশাসনের দুর্বালতাকে দুষছেন স্থানীয়রা। সম্প্রতি ইনডিপেনডেন্ট টিভি সহ কয়েকটি গন মাধ্যমে সীমান্ত দিয়ে বৈধ-অবৈধ পথে পাচার হচ্ছে সোনা। নিরপদ রুট বেনাপোল শিরোনামে বস্তনিষ্ট সংবাদ প্রকাশ হওয়ায় প্রশাসনের সদস্যরা নড়েচড়ে বসেছে। একের পর এক সোনার চালান আটক করছেন কাষ্টম গোয়েন্দা সদস্যরা। দেশের সম্পদ ভারতে পাচার রোধে কাষ্টম শুল্ক গোয়েন্দাদের আটক অভিযানকে ভাল দৃষ্টিতে দেখেছেন স্থানীয়রা। তবে পুলিশ ও বিজিবিকে আরো সজাগ হওযায় আহব্বান জানান-সীমান্ত এলাকার সচেতন মানুষ।


পিএনএস/আলআমীন

 

@PNSNews24.com

আপনার মন্তব্য প্রকাশ করুন
Developed by Diligent InfoTech