নববধূকে ধর্ষণের মামলা: ছাত্রলীগ নেতা বহিষ্কার

  

পিএনএস ডেস্ক : বরিশালের বানারীপাড়া উপজেলার ছাত্রলীগ সভাপতি সুমন হোসেন মোল্লাকে সংগঠন থেকে বহিষ্কার করা হয়েছে। স্বামীকে আটকে রেখে নববধূকে ধর্ষণ অভিযোগের দায়ের হওয়া একটি মামলার আসামি সুমন।

ছাত্রলীগের কেন্দ্রীয় কমিটি সুমনকে বহিষ্কার করে। এর আগে গতকাল রোববার রাতে বরিশাল জেলা ছাত্রলীগের সভাপতি হেমায়েত উদ্দিন সেরনিয়াবাত ও সাধারণ সম্পাদক আবদুর রাজ্জাক উপজেলা ছাত্রলীগ থেকে তাঁকে বহিষ্কারের সুপারিশ করে কেন্দ্রে চিঠি পাঠান।

জেলা ছাত্রলীগের সভাপতি হেমায়েত উদ্দিন সেরনিয়াবাত বলেন, ধর্ষণের অভিযোগ ওঠায় বানারীপাড়া উপজেলা ছাত্রলীগের সভাপতি সুমন হোসেন মোল্লাকে দল থেকে বহিষ্কারের সুপারিশ করা হয়। কেন্দ্র মৌখিকভাবে তাঁকে বহিষ্কারের সিদ্ধান্ত জানিয়েছে। এখন লিখিত সিদ্ধান্ত নেওয়ার অপেক্ষা।

এর আগে গতকাল বিকেলে বানারীপাড়া থানায় মামলা দায়েরের পর রাত সাড়ে আটটায় বরিশাল নগরের কালীবাড়ি রোড থেকে সুমন মোল্লাকে গ্রেপ্তার করে পুলিশ। গ্রেপ্তারের পর তাঁকে কারাগারে পাঠানো হয়েছে।

গত শনিবার রাতে স্বামীকে আটকে রেখে নববধূকে ধর্ষণের অভিযোগ ওঠে সুমনের বিরুদ্ধে। নববধূর স্বামী অভিযোগ করেন, সুমন তাঁর কাছে এক লাখ টাকা চাঁদা দাবি করেন। চাঁদা না দেওয়ায় তাঁকে এবং তাঁর ফুপুকে আটকে রেখে তাঁর স্ত্রীকে ধর্ষণ করেন সুমন।

বানারীপাড়া থানার পরিদর্শক সাজ্জাদ হোসেন বলেন, সুমনকে আদালতের মাধ্যমে কারাগারে পাঠানো হয়েছে।

পিএনএস/জে এ মোহন

 

@PNSNews24.com

আপনার মন্তব্য প্রকাশ করুন
Developed by Diligent InfoTech