আদম ব্যাপারির প্রতারনায় উজিরপুরের পাঁচ যুবক নিঃস্ব

  

পিএনএস, বরিশাল প্রতিনিধি : আফ্রিকা প্রবাসী আদম ব্যবসায়ীর প্রতরনায় বরিশালের উজিরপুর উপজেলার বামরাইল ইউনিয়নের মোড়াকাঠী গ্রামের পাঁচ যুবক নিঃস্ব হয়ে তাদের টাকা ফেরত পেতে পৃথকভাবে থানায় লিখিত অভিযোগ দায়ের করেছেন।

ওই গ্রামের টুকু সরদার জানান, তাকে আফ্রিকায় নেয়ার কথা বলে তিন বছর পূর্বে একই গ্রামের আজিজ রাড়ীর পুত্র আফ্রিকা প্রবাসী মাসুদ রানা ছুটিতে দেশে এসে তার কাছ থেকে ছয় লাখ টাকা হাতিয়ে নেয়। পরবর্তীতে প্রতি মাসেই ফ্লাইটের কথা বলে তাকে সর্বমোট ৮৬ বার ঢাকায় নেয়া হলেও শেষ পর্যন্ত তিনি (টুকু) অদ্যবর্ধি আফ্রিকায় যেতে পারেননি। একই ভাবে ওই গ্রামের সোহেল দেওয়ানের কাছ থেকে সাড়ে তিন লাখ এবং সোহাগ সিকদারের কাছ থেকে এক লাখ টাকা হাতিয়ে নেয় আফ্রিকা প্রবাসী ও আদম ব্যবসায়ী মাসুদ রানা।

ওই গ্রামের সজীব শরীফ ও সোহেল সরদার জানান, তারা আফ্রিকায় থাকার সুবাদে মাসুদ রানার সাথে তাদের পরিচয় হয়। এর জের ধরে ২০১৩ সালে মাসুদ রানার প্ররোচনায় তারা তিনজনে (মাসুদ, সজীব ও সোহেল) এক কোটি ২০ লাখ বাংলাদেশী টাকার চুক্তিতে একটি দোকান ক্রয় করে ব্যবসা শুরু করেন। এজন্য তারা তিনজনেই সমহারে ৬০ লাখ টাকা করে নগদ দিয়েছিলেন। সজীব ও সোহেল সরদার আরও জানান, দোকান ক্রয়ের পূর্বে চুক্তিতে মালিকানায় তিনজনের নাম উল্লেখের কথা থাকলেও কৌশলে মাসুদ তার একার নামে দোকান ঘরের চুক্তি করিয়ে নেয়। পরবর্তীতে বিষয়টি জানাজানি হওয়ার পর মাসুদ রানা তাদের দুইজনকে (সজীব ও সোহেল) দোকান থেকে বের করে দেয়।

সজীব শরীফ আরও জানায়, তিনি বিষয়টি নিয়ে বাড়াবাড়ি করায় মাসুদ রানা আফ্রিকায় অবস্থানকালীন তাকে একাধিকবার হত্যার চেষ্টা করে। এক পর্যায়ে মাসুদ রানার ভয়ে সে (সজীব) আফ্রিকা ছাড়তে বাধ্য হয়। সূত্রে আরও জানা গেছে, গত এক মাস পূর্বে প্রতারক আদম ব্যবসায়ী মাসুদ রানা ছুটিতে গ্রামের বাড়িতে আসে। এ সময় অসহায় ভুক্তভোগীরা তাদের সমূদয় টাকা ফেরত পেতে মাসুদের বাড়িতে গেলে সে বিভিন্ন তালবাহানা শুরু করে। উপায়ান্তুর না পেয়ে তাদের টাকা উদ্ধারের জন্য পৃথকভাবে মাসুদ রানার বিরুদ্ধে উজিরপুর থানায় লিখিত অভিযোগ দায়ের করেছেন।

করে শিক্ষা মন্ত্রনালয় গেজেট প্রকাশ করে এমপিও ভুক্ত শিক্ষক কর্মচারীরা অবসরের জন্য ৬% কল্যানের জন্য ৪% মোট ১০ ভাগ চাদা দিতে হবে। এই টাকা তাদের সরকিরী অংশের বেতন থোকে বেটে নেয়া হবে। এই ১০ ভাগ কেটে নেয়ার বিষয়ে শিক্ষক সমাজ কখনও মেনে নেবেনা। সংবাদ সম্মেলনে বরিশাল বিভাগে ১৮ জুলাই থেকে ৩০ জুলাই পযন্ত বিভিন্ন কর্মসুচীর ডাক দেয়। সংবাদ সম্মেলনে আরো উপস্থিত ছিলেন অধ্যক্ষ গৌরঙ্গ চন্দ্র কুন্ড, অধ্যক্ষ আমিনুল ইসলাম খসরু, অধ্যক্ষ হানিফ হোসেন তালুকদার,রেজাউল করিম, শাহ আলম মিয়াসহ শিক্ষক নেতৃবৃন্দ।

পিএনএস/মোঃ শ্যামল ইসলাম রাসেল


 

@PNSNews24.com

আপনার মন্তব্য প্রকাশ করুন
Developed by Diligent InfoTech