নবজাতকের মৃত্যু, উত্তেজনা

  

পিএনএস ডেস্ক : আজিমপুরের মাতৃসদন ও শিশু স্বাস্থ্য প্রশিক্ষণ প্রতিষ্ঠানে (ম্যাটারনিটি) পারভীন (২৬) নামের এক প্রসুতি মহিলাকে ভর্তি না করে তাড়িয়ে দেয়ায় হাসপাতালের কম্পাউন্ডেই সন্তানের জন্ম দিয়েছেন। আজ মঙ্গলবার সকাল ৮ টার দিকে এই ঘটনা ঘটে। সন্তান প্রসবের দুই এক মিনিটের মধ্যেই নবজাতকের মৃত্যু হয়েছে। পরে রোগির স্বজন ও এলাকাবাসী জড়ো হওয়ায় হাসপাতালে টান টান উত্তেজনা বিরাজ করছে।

প্রসুতি মহিলার স্বজন সোহেল রানা জানান, সকালে হাসপাতালের গাইনী বিভাগে রোগী নিয়ে আসলে আমাদের কাছে ১৫শ টাকা দাবি করা হয়। টাকা না দিতে পারায় সঙ্গে সঙ্গে লেবার রুম (সন্তান জন্ম দেয়ার কক্ষ) থেকে বের করে দেন হাসপাতালের এক বুয়া ও নার্স। পরে বাইরে হাসপাতালের কম্পাউন্ডেই একটি ছেলে বাচ্চার জন্ম হয়। কিন্তু ২/১ মিনিটের মধ্যেই বাচ্চাটি মারা যায়। এখন বাচ্চাটিকে লেবার রুমে রাখা হয়েছে। একই সঙ্গে রোগীকে স্যালাইন দিয়ে রাখা হয়েছে।

উল্লেখ্য, পারভীনের প্রসব বেদনা উঠার পর গত রাত ৪ টার দিকে প্রথমে ঢাকা মেডিকেলে নেয়া হয়। সেখানে ভর্তি না নেয়ায় নেয়া হয় মিডফোর্ড হাসপাতালে। দুই হাসপাতালেই টাকার জন্য ভর্তি করতে পারেননি রোগীর স্বজনরা।

মাতৃসদন ও শিশু স্বাস্থ্য প্রশিক্ষণ প্রতিষ্ঠানের তত্বাবধায়ক ডা. ইসরাত জাহান বলেন, কেউ যদি টাকা চেয়ে থাকে তাহলে অবশ্যই খুব খারাপ কাজ করেছে। আমরা ঘটনা তদন্ত করতে গাইনি বিশেষজ্ঞ ডা. রওশন হোসেনকে প্রধান করে তিন সদস্যের একটি টিম করে দিয়েছি। আগামী ২৪ ঘন্টার মধ্যে তাদের রিপোর্ট দিতে বলা হয়েছে। আমাদের হাসপাতাল কর্তৃপক্ষের কেউ জড়িত থাকলে তাকে শাস্তির আওতায় আনা হবে। তিনি আরো বলেন, হাসপাতালে কিছু দালালের দৌরাত্ম আছে। তারা আমাদের কাজে বিভিন্ন ভাবে সমস্যা সৃষ্টি করে।

পিএনএস/জে এ /মোহন

 

@PNSNews24.com

আপনার মন্তব্য প্রকাশ করুন
Developed by Diligent InfoTech