নাসিরনগরে মিনি পতিতালয় ও মাদকের বিরুদ্ধে অভিযোগ

  

পিএনএস, ব্রাহ্মণবাড়িয়া প্রতিনিধি : ব্রাহ্মণবাড়িয়ার নাসিনগরে যেখানে মাদকের বিরুদ্ধে যুদ্ধ ঘোষনা করে ব্রাহ্মণবাড়িয়ার পুলিশ সুপার মিজানুর রহমান বলেছেন এ জেলায় ‘‘হয়তো মাদক থাকবে, না হয় আমি থাকব’’। পুলিশ সুপারের এ ঘোষণার পর অনেক মাদক ব্যবসায়ী এলাকা ছেড়ে পালিয়ে গেছে। আবার অনেকেই তার কাছে আত্মসমর্পন করে মাদক ব্যবসা ছেড়ে দিয়ে ভাল হয়ে অন্য পেশায় মনোনিবেশ করেছে।এহেন পরিস্থিতিতে ব্রাহ্মণবাড়িয়া জেলার নাসিরনগরের পল্লীতে মিনি পতিতালয় ও মাদক ব্যবসার বিরুদ্ধে লিখিত অভিযোগ পাওয়া গেছে।তাদের অসামাজিক কার্যকলাপের কারনে বেশ কয়েকটি সংখ্যালঘু পরিবার সহ সমাজের শান্তি প্রিয় মানুষ নির্বিঘ্নে চলাফেরা করতে পারছে না। যুব সমাজ আজ ধ্বংসের দ্বার প্রান্তে। ঘটছে সামাজিক ও নৈতিক অবক্ষয়। এ বিষয়ে সচেতন গ্রামবাসী মিলে ব্রাহ্মণবাড়িয়ার পুলিশ সুপার ও নাসিরনগর উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা বরাবরে লিখিত অভিযোগ দাখিল করছে মর্মে জানা গেছে।

ঘটনাটি ঘটেছে ব্রাহ্মণবাড়িয়া জেলার নাসিরনগর উপজেলার ঐতিহ্যবাহী গোকর্ন ইউনিয়নের নূরপুর গ্রামে। এলাকাবাসী প্রত্যক্ষদর্শী ও অভিযোগ সূত্রে জানা গেছে, নূরপুর গ্রামের হেলাল মিয়া ও তার স্ত্রী নাছিমা বেগম ৬টি সংখ্যালঘু পরিবারের পাশে একটি নতুন বাড়ী তৈরী করে।বাড়ী তৈরীর পর থেকেই সেখানে মরণনেশা মদ, গাঁজা, ইয়াবা জাতীয় মাদক দ্রব্য বিক্রি সহ বিভিন্ন অঞ্চল থেকে সুন্দরী তরণীদের ভাড়া এনে বাড়িটিকে মিনি পতিতালয় বানিয়ে প্রতিনিয়ত দেহ ব্যবসা চালিয়ে যাচ্ছে।

সংখ্যালঘু পরিবারের লোকজন তাদের ভয়ে মুখ খুলে কিছু বলার সাহস পাচ্ছে না। সংখ্যা লঘুদের ছেলে মেয়েরা পুকুরে গোসল করতে গেলে পতিতালয়ে আসা যুবকরা তাদের বিভিন্নভাবে ঠাট্টা পশকারী ও অশালীন আচরন করছে।এই পরিবারের নারীদের অশালীন চলাফেরা ও পতিতা বৃত্তির কারণে যুব সমাজ আজ ধ্বংসের পথে। এ বিষয়ে সরেজমিন এলাকায় গিয়ে বিভিন্ন লোকজনের সাথে কথা বললে, নাম প্রকাশে অনিচ্ছুক বেশ কয়েকজন এ প্রতিনিধি কে জানান নূরপুর গ্রামের আব্দুল কাইয়ুম মুন্সীর ছেলে মোঃ আলাউদ্দিন ও স্থানীয় দুই একজন প্রভাবশালী ব্যক্তি তাদের কাছ থেকে প্রতি মাসে নিচ্ছে মাসোয়ারা। তাদের সহযোগিতায় তারা দীর্ঘদিন যাবৎ এ ব্যবসা চালিয়ে যাচ্ছে। আলাউদ্দিনের বিরুদ্ধে এমন অভিযোগ এলাকাবাসীর দীর্ঘদিনের।নাম প্রকাশে অনিচ্ছুক বেশ কয়েকজন স্থানীয় ব্যক্তি জানান, আলাউদ্দিন প্রতি নিয়তই দুই একজন করে খদ্দের সাথে নিয়ে সেখানে আসে আবার দুই তিন ঘন্টা থাকার পর চলে যায়। সচেতন গ্রামবাসী যৌথ স্বাক্ষরে ২রা অক্টোবর নাসিরনগর উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা ও ১৬ অক্টোবর ব্রাহ্মণবাড়িয়ার পুলিশ সুপার বরাবর লিখিত অভিযোগ দাখিল করেন।

অভিযোগ দাখিলের পর ব্রাহ্মণবাড়িয়ার পুলিশ সুপার মোঃ মিজানুর রহমান পিপিএম (বার)এ বিষয়ে তদন্তপূর্বক আইনগত ব্যবস্থা গ্রহণক্রমে ৭ দিনের ভিতর একটি তদন্ত প্রতিবেদন প্রদানের জন্য (সরাইল) সার্কেল মোঃ মনিরুজ্জামান ফকিরকে নির্দেশ দেন।

তাছাড়াও বিভিন্ন সূত্র থেকে প্রাপ্ত তথ্যে ও এলাকাবাসীর অভিযোগের ভিত্তিতে জানা গেছে ধরমন্ডল ইউনিয়নের,ধরমন্ডল গ্রামের আন্নর আলী চোরের ছেলে কামরুল ইসলাম,মিলন চৌধুরীর ছেলে অরূপ চৌধুরী, বাছির মিয়ার স্ত্রী আজিদা খাতুন,হরিপুর ইউনিয়নের জামাল পাঠানের ছেলে সুজন পাঠান, আব্দুর রউফের ছেলে জুরুল খাঁন পাঠান, আব্দুল মান্নানের ছেলে মহসিন, নুর মিয়ার ছেলে টেন্ডল মিয়া, মনোজ মিয়ার ছেলে অনু মিয়া। চাতলপাড় ইউনিয়নের মিয়া হোসেনের ছেলে মোশারফ হোসেন, আউয়াল উদ্দিনের ছেলে ইস্তার মিয়া, সাবেক মেম্বার ফরিদ মিয়ার ছেলে নয়ন মিয়া,গোকর্নের জামাই নামে খ্যাত মোঃ এজাজুল মিয়া সহ আরো বেশ কয়েক জন ঘরে তুলেছে ইয়াবার স্বর্গ রাজ্য।

৩রা অক্টোবর বাহ্মণবাড়িয়ার মাদক দ্রব্য নিয়ন্ত্রণ অধিদপ্তরের পরিদর্শক দেওয়ান মোহাম্মদ জিল্লুর রহমান সংগীয় ফোর্স নিয়ে এক অভিযান পরিচালনা করে গোকর্ণ ইউনিয়নের জেঠাগ্রাম সূচীউড়া থেকে উপজেলা যুবলীগের সাধারণ সম্পাদক ও উপজেলা ছাত্রলীগের সাবেক সাধারণ সম্পাদকের ভগ্নিপতি ও ভাগ্নে মোঃ রমজান আলী ফকির (৬৫) ও তার ছেলে জাহাঙ্গীর আলম প্রকাশ (সম্রাট) (২৮)কে ২৫কেজি ভারতীয় গাঁজা ও ২৫০পিস ইয়াবা ট্যাবলেট সহ গেপ্তার করে। তাদের বিরুদ্ধে নাসিরনগর থানায় মাদক দ্রব্য নিয়ন্ত্রণ আইনে মামলা রুজু করে।

অভিযোগের বিষয়ে মোবাইল ফোনে নাসিরনগর উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা মোঃ লিয়াকত আলীর সাথে জানতে চাইলে তিনি বলেন প্রয়োজনীয় ব্যবস্থা নেওয়ার জন্য নাসিরনগর থানার ওসি কে বলেছি। তাৎক্ষনিক ভাবে তাদের আটক করে আমাদের খবর দিতে স্থানীয়দের বলেছি।

এ বিষয়ে মোবাইল ফোনে সার্কেল মনিরুজ্জামান ফকিরের সাথে যোগাযোগ করে জানতে চাইলে, তিনি বলেন অভিযান চলছে। অপরাধীরা গ্রাম ছেড়ে পালিয়ে গেছে। ঘটনার সাথে যে ই জড়িত থাকুক না কেন কেউ রেহাই পাবে না।


পিএনএস/মোঃ শ্যামল ইসলাম রাসেল

 

@PNSNews24.com

আপনার মন্তব্য প্রকাশ করুন
Developed by Diligent InfoTech