তরুণীকে গণর্ধষণের পর হত্যার ঘটনায় গ্রেফতার ৪ ছাত্রলীগ নেতা

  

পিএনএস ডেস্ক: বরগুনার পাথরঘাটায় অজ্ঞাত এক তরুণীকে গণর্ধষণের পর হত্যার সঙ্গে সরাসরি সম্পৃক্ত থাকার অভিযোগে পাথরঘাটার চার ছাত্রলীগ নেতাসহ পাঁচজনকে গ্রেফতার করেছে পুলিশ।

গ্রেফতারকৃতরা হলেন, পাথরঘাটা উপজেলা ছাত্রলীগের সহ-সম্পাদক মো. মাহমুদ (১৮), পাথরঘাটা ডিগ্রি কলেজ ছাত্রলীগের সভাপতি রুহি আনাল দানিয়াল, সাধারণ সম্পাদক সাদ্দাম হোসেন ছোট্ট, সাংগঠনিক সম্পাদক মহিদুল ইসলাম রায়হান (১৯) এবং ওই কলেজের নৈশপ্রহরী মো. জাহাঙ্গীর।

বরগুনার পুলিশ সুপার বিজয় বসাক জানান, চলতি বছরের ১০ আগস্ট দুপুরে পাথরঘাটা কলেজের পশ্চিম পাশের পুকুর থেকে অজ্ঞাতনামা এক তরুণীর গলিত লাশ উদ্ধার করা হয়। ঘটনার পর থেকে এ হত্যাকাণ্ডের রহস্য উদঘাটনে দীর্ঘ সময় ধরে লেগে থাকে বরগুনা থানার পুলিশ। পরে তথ্য পেয়ে গত শুক্রবার পাথরঘাটা কলেজের নৈশ প্রহরীকে গভীররাতে আটক করে জিজ্ঞাসাবাদ করে ডিবি পুলিশ।

তার দেয়া স্বীকারোক্তি অনুযায়ী গত শনিবার রাতে ছাত্রলীগ নেতা মাহমুদ ও রায়হানকে আটক করে জিজ্ঞাসাবাদ করে পুলিশ। সর্বশেষ রোববার বিকেলে পাথরঘাটার আদালতে মাহমুদ ও রায়হানের ১৬৪ ধারায় দেয়া স্বীকারোক্তি অনুযায়ী গ্রেফতার করা হয় কলেজ ছাত্রলীগ সভাপতি রুহি আনাল দানিয়েল ও সাধারণ সম্পাদক সাদ্দাম হোসেন ছোট্টকে।

পুলিশ সুপার বিজয় বসাক আরও বলেন, এখনও পর্যন্ত নিহত তরুণীর পূর্ণ পরিচয় পাওয়া যায়নি। তবে রোববার বিকেলে গ্রেফতারকৃত দানিয়েল এবং সাদ্দামকে এখনও জিজ্ঞাসাবাদ করা হয়নি। তাদেরকে জিজ্ঞাসাবাদের মধ্য দিয়ে তরুণীর পরিচয় পাওয়া যাবে বলে মনে করেন পুলিশ সুপার বিজয় বসাক।

তবে মাহমুদ এবং রায়হান এ হত্যাকাণ্ড এবং হত্যাকাণ্ডের পর লাশ পুকুরে লুকানোর সঙ্গে সম্পৃক্ত ছিল বলে আদালতে স্বীকারোক্তি দিয়েছে বলে পুলিশ সুপার বিজয় বসাক জানান। সুষ্ঠু তদন্তের স্বার্থে ঘটনার আদ্যপান্ত সব কিছু এখনও প্রকাশ করতে অস্বীকৃতি জানান পুলিশ সুপার বিজয় বসাক।

পিএনএস/হাফিজুল ইসলাম

 

@PNSNews24.com

আপনার মন্তব্য প্রকাশ করুন
Developed by Diligent InfoTech