ধনবাড়ীতে কিশোরীকে অপহরণ করে রাতভর ধর্ষণ

  

পিএনএস : টাঙ্গাইলের ধনবাড়ীতে বংশাই নদীর বওলা ঘাটে আস্তানা গাড়া বেদে বহর থেকে সুন্দরী এক কিশোরীকে (১৩) জোরপূর্বক অপহরণ করে নিয়ে রাতভর ধর্ষণ করে আহত অবস্থায় আজ বৃহস্পতিবার ভোর রাতে বেদে বহরের পাশে ফেলে রেখে যায়। এ ঘটনায় ধর্ষিতা ওই কিশোরীর বাবা বাদী হয়ে আজ ধনবাড়ী থানায় মামলা দায়ের করেছেন।

নির্যাতিত কিশোরীর পরিবার ৭ম রোজার দিন যদুনাথপুর ইউনিয়নের বংশাই নদীর বওলা ঘাটে অপরাপর ৫০টি পরিবারের সাথে অস্থায়ীভাবে বেদে বহর ঘাটি করে বসবাস শুরু করে। তারা ঢাকা জেলার সাভারের পোড়াবাড়ী এলাকার বাসিন্দা।

নির্যাতিত কিশোরীর বাবা অভিযোগে করে বলেন, গত মঙ্গলবার রাতে ধনবাড়ী উপজেলার যদুনাথপুর ইউপির পাড়বওলা গ্রামের নাসির উদ্দিনের ছেলে আশিকুর রহমান আশিক (২৫) কয়েক বন্ধুকে সাথে নিয়ে বেদে বহরে অতর্কিতে হামলা করে ১৩/১৪ বছরের কিশোরী মেয়েকে অপহরণ করে সিএনজি যোগে নিয়ে যায়। পরে খোজ নিয়ে জানতে পারি মেয়েকে জামালপুর জেলার মাদারগঞ্জে অজ্ঞাতস্থানে একটি ঘরে আটকিয়ে রেখে শারীরিক নির্যাতন করছে। আজ বৃহস্পতিবার ভোর রাতে বেদে বহরের পাশে কিশোরীকে রেখে যায়। যাওয়ার সময় বিষয়টি নিয়ে উচ্চবাচ্য করলে জীবননাশের হুমকি প্রদান করে যায়।

সরেজমিনে গিয়ে বক্তব্য নিতে গেলে নির্যাতিত ওই কিশোরী ঘটনার সত্যতা স্বীকার করে জানান, তাকে জোরপূর্বক অপহরণ করে অজ্ঞাতস্থানে নিয়ে একটি ঘরে আটকে রেখে তার সাথে সব ধরনের খারাপ কাজ করেছে। পরে অজ্ঞান অবস্থায় তাকে বেদে বহরের পাশে ফেলে রেখে যায়।

এ ঘটনায় বেদে বহরে আতঙ্ক ছড়িয়ে পড়েছে। নিরাপত্তার ভয়ে কেউ মুখ খুলতে সাহস পাচ্ছেন না। রোজগারহীন বেদে বহরের লোকজন মানবেতর জীবনযাপন করছেন। তারা এ ঘটনার দ্রুত বিচার দাবী করেছেন। স্থানীয় ব্যাংকার হারুন অর রশিদ বিষয়টি স্থানীয় ভাবে মীমাংসার চেষ্টা চলছে বলে জানিয়েছেন।

অপহরণকারীদের বাড়ীতে গিয়ে কাউকে পাওয়া জায়নি। পাশের বাড়ীর লোকজন জানান, তারা বাড়ীতে তালা দিয়ে সবাই পালিয়ে গেছে। ধনবাড়ী থানার ওসি মজিবর রহমান জানান, এ ব্যাপারে একটি লিখিত অভিযোগ পেয়েছি। তদন্ত করে যথাযথ ব্যবস্থা নেয়া হবে।

পিএনএস/মোঃ শ্যামল ইসলাম রাসেল


 

@PNSNews24.com

আপনার মন্তব্য প্রকাশ করুন
Developed by Diligent InfoTech