হবিগঞ্জে মাটি নিয়ে ছোট ভাইয়ের হাতে বড় ভাই খুন!

  

পিএনএস ডেস্ক :হবিগঞ্জের মাধবপুর উপজেলায় ছোট ভাইয়ের ফিকলের আঘাতে বড় ভাই এরশাদ আলী (৫০) খুন হয়েছেন।

বৃহস্পতিবার (১৪ ফেব্রুয়ারি) সকালে সিলেট ওসমানী হাসপাতালে চিকিৎসাধীন অবস্থায় মারা যান তিনি। এর আগে বুধবার সকালে ১১টায় উপজেলার ধর্মঘর ইউনিয়নের বৈষ্ঠবপুর গ্রামে এ ঘটনা ঘটে।

জানা যায়- মাটি ফালানোকে কেন্দ্র করে বাবার সঙ্গে ছোট ভাই বাচ্চু মিয়ার বাকবিতন্ডা হয়। প্রতিবাদ করলে ছোট ভাই বাচ্চু মিয়ার ফিকলের আঘাতে এরশাদ আলীর বুকে গুরুতর আহত হয়। আশংকাজনক অবস্থায় তাকে সিলেট এমএজি ওসমানী মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে ভর্তি করা হলে বৃহস্পতিবার ভোরে তার মৃত্যু ঘটে।

পুলিশ ও এলাকাবাসীর সূত্রে জানা যায়, বৈষ্ঠবপুর গ্রামের মর্তুজ মিয়ার বড় ছেলে এরশাদ আলী দীর্ঘদিন ব্রুনাই ও ছোট ছেলে বাচ্চু মিয়া সৌদি থাকত। জমিজমা সংক্রান্ত বিষয় নিয়ে দীর্ঘদিন যাবত দুই ভাইয়ের মধ্যে বিরোধ চলছিল।

বুধবার সকালে বাড়ির উঠানে বাচ্চু মিয়া মাটি ফেলে। এতে তার বৃদ্ধ বাবা মতুর্জ আলী বাধা দেয়। এ নিয়ে বাবা ও ছেলের মধ্যে বাকবিতন্ডা দেখা দিলে বড় ভাই এরশাদ আলী ছোট ভাইকে নিবৃত্ত করতে গেলে ছোট বাচ্চু মিয়া ফিকল দিয়ে এরশাদ আলীর বুকে আঘাত করে।

মুমূর্ষু অবস্থায় স্বজনরা তাকে উদ্ধার করে প্রথমে মাধবপুর পরে সিলেট এমএজি ওসমানী মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে নিয়ে যায়। সেখানে বৃহষ্পতিবার ভোর ৪টার দিকে কতর্ব্যরত চিকিৎসক এরশাদ আলীকে মৃত ঘোষণা করেন।

মাধবপুর সার্কেলের অতিরিক্ত পুলিশ সুপার এসএম রাজু আহমেদ ও মাধবপুর থানার অফিসার ইনচার্জ চন্দন কুমার চক্রবর্তী ঘটনাস্থল পরিদর্শন করেছেন।

মাধবপুর থানার অফিসার ইনচার্জ চন্দন কুমার চক্রবর্তী ঘটনার সত্যতা নিশ্চিত করে বলেন ময়নাতদন্ত শেষে সিলেট থেকে লাশ নিয়ে আসা হচ্ছে। তবে এখন পর্যন্ত এ ঘটনায় মামলা হয়নি প্রক্রিয়াধীন আছে। এ ঘটনার পর থেকেই বাচ্চু মিয়া তার পরিবারের লোকজন পলাতক রয়েছেন।

পিএনএস/এএ

 

@PNSNews24.com

আপনার মন্তব্য প্রকাশ করুন
Developed by Diligent InfoTech