পাইকগাছায় শিশুকে যৌন নির্যাতন মামলায় আটক ১

  

পিএনএস, পাইকগাছা (খুলনা) প্রতিনিধি : খুলনার পাইকগাছায় শিশুকে যৌন নির্যাতনের অভিযোগে মামলা হয়েছে। পুলিশ অভিযুক্ত শহীদুল সরদার (৪২) কে গ্রেফতার করেছে।

পুলিশ ও পারিবারিক সূত্র জানায়, উপজেলার নাছিরপুর গ্রামের মৃত হক সরদারের ছেলে শহিদুল সরদার (৪২) পহেলা বৈশাখে দুপুর ২ টার দিকে বাড়ীতে কেউ না থাকার সুযোগে তারই প্রতিবেশী তৃতীয় শ্রেণীর মাদ্রাসা ছাত্রীকে বাড়ির পাশের রাস্তা থেকে ফুল দেওয়ার কথা বলে নিজ ঘরে ডেকে নিয়ে শরীরের বিভিন্ন স্পর্শকাতর স্থানে হাত দিয়ে নীপিড়ন শুরু করে। একপর্যায়ে তার মুখ চেপে ধরে ধর্ষণ চেষ্টা চালায়। শিশুটির মা দীর্ঘক্ষণ মেয়েকে বাড়ীতে দেখতে না পেয়ে শহীদুলের বাড়ীর দিকে এগুতে থাকলে মেয়ের অস্পষ্ট ধস্তাধস্তির আওয়াজ পেয়ে সেদিকে এগিয়ে গেলে শহীদুল তাকে ছেড়ে দেয়। তাৎক্ষণিক সে তার মায়ের কাছে বিস্তারিত খুলে বলে। এরপর শিশুটির মা মুর্শিদা বেগম শহীদুলের নিকট এব্যাপারে জিজ্ঞাসা করলে সে ঘটনার কথা বেমালুম অস্বীকার করে উল্টো এনিয়ে বাড়াবাড়ি করলে মাদকসহ বিভিন্ন মামলায় তাদেরকে ফাঁসানোর হুমকি দেয়। ঘটনার শিকার শিশুটি স্থানীয় কপিলমুনি জাফর আউলিয়া সিনিয়র মাদ্রাসার তৃতীয় শ্রেণীর ছাত্রী।

বিষয়টি তাৎক্ষণিক তারা স্থানীয় ইউপি সদস্যকে জানালে পহেলা বৈশাখের পরের দিন সোমবার সকালে স্থানীয় ইউপি সদস্য আ. আজিজ বিশ্বাস ও কপিলমুনি আওয়ামীলীগের সভাপতি যুগোল কিশোর দে তাদের বাড়ীতে গিয়ে বিষয়টি শুনে চলে আসেন।

এরপর তারা শিশুটিকে নিয়ে থানায় উপস্থিত হয়ে তার মা মুর্শিদা বেগম বাদী হয়ে শহীদুলকে আসামী করে একটি ধর্ষণ প্রচেষ্টা, নারী ও শিশু নির্যাতন আইনে একটি মামলা করেছে। যার নং-১৫। এদিকে সোমবার বিকালে স্থানীয় কপিলমুনি পুলিশ ফাঁড়ির এসআই বাবুল অভিযুক্ত শহিদুলকে তার বাড়ী থেকে গ্রেফতার করেছে।

পিএনএস/মো: শ্যামল ইসলাম রাসেল

 

@PNSNews24.com

আপনার মন্তব্য প্রকাশ করুন
Developed by Diligent InfoTech