তিন ছাত্রীকে যৌন নির্যাতনের অভিযোগে প্রধান শিক্ষককে গণপিটুনি দিয়ে পুলিশে সোপার্দ

  

পিএনএস ডেস্ক : ঝিনাইদহ শহরের আলহেরা সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়ের প্রধান শিক্ষক আবদুস সালামের বিরুদ্ধে তিন ছাত্রীকে যৌন নির্যাতন করার অভিযোগ ওঠেছে। ভুক্তভোগি শিশুদের অভিভাবক ও এলাকাবাসী গণপিটুনি দিয়ে ওই শিক্ষককে পুলিশে সোপার্দ করেছে।

বুধবার সকালে পঞ্চম শ্রেণির তিন শিক্ষার্থীকে বিভিন্ন সময় যৌন নির্যাতন করায় তাদের অভিভাবকরা ওই বিদ্যালয়ে হাজির হয়। পরে তাদের সঙ্গে যোগ দেয় বিক্ষুব্ধ এলাকাবাসী। বিদ্যালয়ে প্রধান শিক্ষক আবদুস সালামকে তারা মারধর করে পুলিশের হাতে তুলে দেয়। পরে এক শিক্ষার্থীর অভিভাবক ওই শিক্ষকের বিরুদ্ধে যৌন নিপীড়নের অভিযোগে মামলা করলে তাঁকে গ্রেফতার দেখায় পুলিশ।

প্রধান শিক্ষক আবদুস সালামের বাড়ি ঝিনাইদহ শহরের ধোপাঘাটা গোবিন্দপুর গ্রামে।

ভুক্তভোগি এক শিক্ষার্থী ল বাবা অভিযোগ করেন, এই শিক্ষক তাঁর মেয়েসহ বেশ কয়েকজন মেয়ের শরীরে প্রায়ই অনাকাঙ্ক্ষিত স্পর্শ করতেন। এ নিয়ে মেয়েদের মধ্যে ক্ষোভের সৃষ্টি হয়। মেয়েরা বাড়িতে গিয়ে বিষয়টি অভিভাবকদের কাছে খুলে বলে। এ বিষয় নিয়ে তাঁরা কয়েকজন অভিভাবক আজ বিদ্যালয়ে যান। ঘটনা জানতে চাইলে প্রধান শিক্ষকের সঙ্গে তাঁদের বচসা শুরু হয়। পরে তাদের সঙ্গে ওই শিক্ষকের ধস্তাধস্তি হয়। পরে ঘটনাস্থলে পুলিশ এলে আব্দুস সালামকে তাদের কাছে সোপার্দ করা হয়। অভিভাবকেরা ওই শিক্ষকের বিচার দাবি করেছেন।

ঘটনার সত্যতা নিশ্চিত করে ঝিনাইদহ পুলিশ সুপার মো. হাসানুজ্জামা জানান, প্রধান আব্দুস সালাম দীর্ঘদিন ধরে বিদ্যালয়টির একাধিক ছাত্রীকে যৌন হয়রানি করতেন। যৌন নিপীড়নের শিকার ছাত্রীরা অভিভাবকদের জানালে বুধবার দুপুরে ছাত্রী ও অভিভাবকরা বিদ্যালয়টি ঘেরাও করে তাকে মারধর করে। খবর পেয়ে পুলিশ ঘটনাস্থলে এসে পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণে আনে এবং ঘটনার সত্যতা প্রাথমিকভাবে প্রামণিত হওয়ায় অভিযুক্ত প্রধান শিক্ষককে গ্রেফতার করে। এ ঘটনায় সদর থানায় মামলা করা হয়েছে।

পিএনএস/এএ

 

@PNSNews24.com

আপনার মন্তব্য প্রকাশ করুন
Developed by Diligent InfoTech