বাণিজ্য মেলায় মানুষের ঢল

  

পিএনএস ডেস্ক: দিনেই। ওই দিন থেকেই মেলায় ছিল দর্শনার্থীদের ভিড়। তবে বেচাকেনা তেমন জমে ওঠেনি এ কয়দিন। মেলায় আগত ক্রেতা-দর্শনার্থীর সংখ্যা কয়েকগুণ বেড়ে যাওয়ার সঙ্গে সঙ্গে বেচাকেনাও বেড়েছে। দোকানিরা বলছেন, এর মাধ্যমেই জমে উঠল এবারের বাণিজ্য মেলা।

প্রতিবছরই মেলায় তিন-চার বার আসা হয় বলে জানান মিরপুরের শেওড়াপাড়ার নিবাসী গৃহিনী রোকসানা কাদের। তিনি বলেন, ‘এখানে একসঙ্গে বেড়ানো ও সংসারের কেনাকাটা— দুটোই হয়। তাই প্রতিবছরই মেলায় আসি কয়েকবার।’

ক্রেতাদের সঙ্গে কথা বলে জানা গেল, দাম নিয়ে এ বছর তাদের কোনও অভিযোগ নেই। পণ্যটি পছন্দ হলেই কিনছেন তারা। আর ক্রেতা আকৃষ্ট করতে নানা কৌশল অবলম্বন করছেন বিক্রেতারাও। মিষ্টি কথার পাশাপাশি কেউ দিচ্ছেন মূল্যছাড়সহ নানা অফার। থাকছে গ্যারান্টিসহ বিক্রয়োত্তর নানা সেবার নিশ্চয়তা।

মেলায় অংশ নেওয়া একাধিক কোম্পানির বিক্রয়কর্মীরা বলছেন, মেলা উপলক্ষে বিভিন্ন পণ্যে রয়েছে বিশেষ ছাড়। প্যাভিলিয়নে গ্রাহকরা আসছেন, তারা পণ্য দেখছেন, অনেকে কিছু কিনছেন। আবার অনেকে না কিনলেও পণ্যটি পছন্দ করে রেখে যাচ্ছেন আরেকদিন এসে কিনবেন বলে। তবে কেনাবেচা সামনের দিনগুলোয় জমে উঠবে বলে জানিয়েছেন তারা।
ক্রেতা-বিক্রেতাদের সঙ্গে কথা বলে জানা যায়, বরাবরের মতো এবারও মেলায় সবচেয়ে বেশি চাহিদা রয়েছে গৃহস্থালি পণ্যের। এজন্য ওয়ালটন, আরএফএল, বেঙ্গল, পারটেক্স, আকতার ফার্নিচার, নাভানাসহ বিভিন্ন গৃহ সামগ্রীর স্টল ও প্যাভিলিয়নে ক্রেতাদের ভিড় সবচেয়ে বেশি। বছরে একবার বাণিজ্য মেলার আয়োজন হওয়ায় কোম্পানিগুলো মেলাকে ঘিরে নতুন ডিজাইনের পণ্য নিয়ে আসে, যেগুলো বছরের অন্য সময় পাওয়া যায় না। নতুন ডিজাইন থাকায় এসব পণ্যের চাহিদা বেশি বলে জানান বিক্রেতারা।

এ বছর মেলায় স্বাগতিক বাংলাদেশ ছাড়াও ভারত, পাকিস্তান, চীন, মালয়েশিয়া, ইরান, থাইল্যান্ড ও যুক্তরাষ্ট্রসহ ২১টি দেশ অংশ নিচ্ছে। এবারের মেলায় রয়েছে সাধারণ, প্রিমিয়ার, সংরক্ষিত, বিদেশি, সাধারণ মিনি, সংরক্ষিত মিনি, প্রিমিয়ার মিনি, বিদেশি মিনি প্যাভেলিয়ন, সাধারণ ও প্রিমিয়ার স্টল, ফুড স্টল, রেস্তোরাঁসহ ১৩টি ক্যাটাগরিতে ৫৮০টি স্টল।
আগের বছরগুলোর মতো এ বছরও মেলায় রয়েছে মুক্তিযুদ্ধের ইতিহাস-সমৃদ্ধ বঙ্গবন্ধু প্যাভিলিয়ন, ই-শপ, শিশুপার্ক, রক্ত সংগ্রহ কেন্দ্র, প্রাথমিক চিকিৎসাকেন্দ্র, মা ও শিশু কেন্দ্র, ফুলের বাগান ও এটিএম বুথ।

১ জানুয়ারি শুরু হওয়া এ মেলা চলবে ৩১ জানুয়ারি পর্যন্ত। প্রতিদিন সকাল ১০টা থেকে রাত ১০টা পর্যন্ত ক্রেতা-দর্শনার্থীদের জন্য খোলা থাকবে মেলা। প্রাপ্তবয়স্কদের জন্য মেলায় প্রবেশে টিকেটের মূল্য ৩০ টাকা ও অপ্রাপ্তবয়স্কদের জন্য ২০ টাকা।

পিএনএস/আলআমীন

 

@PNSNews24.com

আপনার মন্তব্য প্রকাশ করুন
Developed by Diligent InfoTech