রাজধানীর বাজারে প্রতি হালি কলা ৫০ টাকা - অর্থনীতি - Premier News Syndicate Limited (PNS)

রাজধানীর বাজারে প্রতি হালি কলা ৫০ টাকা

  

পিএনএস ডেস্ক:রমজান এলেই দেশে পাকা কলার কদর বেড়ে যায়। কারণ ইফতার ও সেহরিতে অন্যতম একটি অনুসঙ্গ কলা। আর রোজাদারদের এমন চাহিদা কাজে লাগিয়ে অধিক মুনাফা লুটছেন অসাধু ব্যবসায়ীরা। যার কারণে নিত্য প্রয়োজনীয় জিনিসের দামই কয়েকগুণ বেড়েছে। রাজধানীর কয়েকটি বাজার ঘুরে দেখা যায় এক হালি কলা বিক্রি হচ্ছে ৫০ টাকা দরে, যা রমজানের আগে ২০ থেকে ২৫টা দরে বিক্রি হতো।

সবরি ও সাগর কলা প্রতি ডজন ১২০ থেকে ১৫০ টাকায় বিক্রি হচ্ছে। তবে চম্পা, চিনি চাম্পা, নেপালি, বাংলা কলা এর চেয়ে কিছুটা কম দামে বিক্রি হচ্ছে। রমজান মাসে কলার চাহিদাকে কাজে লাগিয়ে সবরি ও সাগর কলা প্রতি পিচ ১২ টাকা পিচ বিক্রি করছেন বিক্রেতারা, তবে কিছু ১০ টাকা দরেও পাওয়া যাচ্ছে।

রমজানের আগে এসব কলার দাম ছিল প্রতি পিস ৫ থেকে ৮ টাকার মধ্যে। অথচ সেই কলার দাম বেড়ে এখন প্রতি পিচ ১২ টাকায় বিক্রি হচ্ছে।

রাজধানীর যাত্রাবা‌ড়ি এলাকার দোকান থেকে কলা কিনছিলেন হাসান নামের একজন বেসরকারি চাকরিজীবী। তিনি বলেন, ‘রমজান মাসে সব জিনিসের এতই দাম বেড়ে যায়, যার ফলে মধ্য-নিম্ন আয়ের মানুষ বড়ই অসহায়। সব জিনিসের দাম অন্য সময়ের চেয়ে বেশি। ফলে সাধারণ মানুষ ব্যবসায়ীদের কাছে আজ অসহায়।

হাসান বলেন, ‘রমজানের আগে যে কলা হালি ৭০/৭৫ টাকায় কিনেছি। সেই কলার দাম ১২০ থেকে ১৪৪ টাকায়। নিজেদের অতিরিক্ত মুনাফার জন্য ব্যবসায়ীরা কলার দাম বাড়িয়ে দিয়েছে।’

রাজধানীর গু‌লিস্থান এলাকার কলা বিক্রেতা হায়দার হোসেন কলার দাম সম্পর্কে বলেন, ‘আমরা তেজগাঁও ও কলাবাগান থেকে পাইকারি দরে কলা কিনে আনি। বর্তমানে কলার দাম বেশি এর কারণ চাহিদার তুলনায় যোগান কম। আমাদের কেনা বেশি পড়ার কারণে বিক্রি করতে হচ্ছে বেশি দামে।’

দরদাম সম্পর্কে তিনি বলেন, ‘৭০০ থেকে ৮০০ টাকায় প্রতি পুন (৮০টি) কিনে আনি, ভালো কলা মাঝে মাঝে আরও বেশি দামে কেনা পড়ে। যে কারণে রমজান মাসে বাধ্য হয়ে কলা বেশি দামে বিক্রি করতে হচ্ছে।’

পিএনএস/এএ

 

@PNSNews24.com

আপনার মন্তব্য প্রকাশ করুন
Developed by Diligent InfoTech