রূপালী লাইফে বিনিয়োগকারীদের ১২৪ কোটি টাকা হাওয়া

  

পিএনএস ডেস্ক: তিন মাসের ব্যবধানে পুঁজিবাজারে তালিকাভুক্ত জীবন বীমা কোম্পানি রূপালী লাইফ ইন্স্যুরেন্সের শেয়ারের দাম কমে প্রায় অর্ধেকে নেমে এসেছে। এতে প্রতিষ্ঠানটির শেয়ারে বিনিয়োগ করা ১২৪ কোটি টাকার ওপরে হাওয়া হয়ে গেছে শেয়ারবাজারের বিনিয়োগকারীদের। অবশ্য কোম্পানিটির শেয়ারের এমন দরপতনের আগে অস্বাভাবিক দাম বেড়ে ছিল।

২০০৯ সালে পুঁজিবাজারে তালিকাভুক্ত হওয়া রূপালী লাইফের পরিশোধিত মূলধনের পরিমাণ ২৮ কোটি ৮৪ লাখ ৯০ হাজার টাকা। আর অনুমোদিত মূলধন ১০০ কোটি টাকা। কোম্পানিটির মোট শেয়ারের সংখ্যা ২ কোটি ৮৮ লাখ ৪৮ হাজার ৭৪৮টি। প্রতিটি শেয়ারের ফেসভ্যালু ১০ টাকা।

তথ্য পর্যালোচনায় দেখা যায়, গত বছরের অক্টোবর শেষে রূপালী লাইফের ১০ টাকা দামের প্রতিটি শেয়ারের দাম ছিল ৪০ টাকা ১০ পয়সা। যা অনেকটা টানা বেড়ে চলতি বছরের ২০ ফেব্রুয়ারি ১১০ টাকায় পৌঁছে যায়। অর্থাৎ সাড়ে তিন মাসে কোম্পানিটির শেয়ার দাম বেড়ে প্রায় তিনগুণ হয়।

শেয়ারের এমন দাম বাড়ার পরিপ্রেক্ষিতে ফেব্রুয়ারি মাসে যেসব বিনিয়োগকারী কোম্পানি শেয়ার কিনেছেন, তাদের অধিকাংশ ধরা খেয়েছেন। কারণ গত তিন মাসে কোম্পানিটির শেয়ার দাম কমে প্রায় অর্ধেক হয়েছে। ৩০ মে লেনদেন শেষে কোম্পানিটির শেয়ার দাম দাঁড়িয়েছে ৬৬ টাকা ৯০ পয়সায়।

অর্থাৎ গত তিন মাসে প্রতিটি শেয়ারের দাম কমেছে ৪৩ টাকা ১০ পয়সা বা ৩৯ শতাংশ। এ হিসাবে কোম্পানিটির সব শেয়ারের সম্মেলিতভাবে দাম কমেছে ১২৪ কোটি ৩৩ লাখ ৮১ হাজার টাকা।

শেয়ারবাজার বিশ্লেষকরা বলছেন, হঠাৎ করে শেয়ার দাম অস্বাভাবিক বাড়ার কারণে এখন এমন দরপতন দেখা দিয়েছে। এতে বোঝা যাচ্ছে, যখন কোম্পানির শেয়ার দাম বেড়ে ছিল তা কিছুতেই স্বাভাবিক ছিল না। কোম্পানিটির ৪০ টাকার শেয়ার কীভাবে ১১০ টাকা হয়েছিল তা বাংলাদেশ সিকিউরিটিজ অ্যান্ড এক্সচেঞ্জ কমিশনকে (বিএসইসি) ক্ষতিয়ে দেখা উচিত।

প্রতিষ্ঠানটির মোট শেয়ারের মধ্যে বর্তমানে ৩১ দশমিক ৬৮ শতাংশ শেয়ার রয়েছে উদ্যোক্তা ও পরিচালকদের হাতে। বাকি শেয়ারের মধ্যে ৫৭ দশমিক ৫৯ শতাংশ রয়েছে সাধারণ বিনিয়োগকারীদের কাছে। আর প্রাতিষ্ঠানিক বিনিয়োগকারীদের কাছে ৬ দশমিক ৭৩ শতাংশ এবং বিদেশিদের কাছে ৪ শতাংশ শেয়ার আছে।

পিএনএস/ হাফিজুল ইসলাম

 

@PNSNews24.com

আপনার মন্তব্য প্রকাশ করুন
Developed by Diligent InfoTech