শিক্ষকদের মধ্যে প্রশ্ন ফাঁসের প্রভাব রয়ে গেছে: শিক্ষামন্ত্রী

  

পিএনএস ডেস্ক: শিক্ষামন্ত্রী নুরুল ইসলাম নাহিদ বলেছেন, প্রশ্ন ফাঁসের সঙ্গে জড়িতদের বিরুদ্ধে ব্যবস্থায় নেয়ার পরও এখনও এর প্রভাব রয়েই গেছে। আমরা রাতভর কাজ করে সকালে যখন কেন্দ্রে শিক্ষকদের হাতে প্রশ্ন তুলে দিচ্ছি, ঠিক তখনই প্রশ্ন ফাঁসের ঘটনা ঘটছে।

রোববার রাজধানীর বিশ্বসাহিত্য কেন্দ্রে মাল্টিমিডিয়া ক্লাসরুম সক্রিয়করণ কর্মশালায় প্রধান অতিথির বক্তব্যে তিনি এ সব কথা বলেন।

মন্ত্রী বলেন, বর্তমান সরকার ক্ষমতায় আসার পর থেকেই আমরা শিক্ষার গুণগত মান এবং শিক্ষিতের হার বৃদ্ধির জন্য চেষ্টা করে আসছি। এর ফলও পেয়েছি। এখন শিক্ষিতের হার যেমন বেড়েছে, তেমনি শিক্ষার মানও বাড়ছে। আর তাই এখনকার প্রজন্মের কাছ থেকে অনেক কিছু শেখার রয়েছে। অথচ কিছু শিক্ষক স্বার্থের কারণে প্রশ্নপত্র ফাঁসের মত কেলেঙ্কারির সঙ্গে জড়িয়ে পড়ছে।

তিনি বলেন, আমরা দেশের শিক্ষা ব্যবস্থাকে ডিজিটালকরণের মধ্য দিয়ে শিক্ষা ব্যবস্থার আরও উন্নয়ন করতে চাই। মাল্টিমিডিয়া ক্লাসরুম সক্রিয়করণের মধ্য দিয়ে শিক্ষা ব্যবস্থার ব্যাপক উন্নয়ন হবে। মাল্টিমিডিয়া ক্লাসরুম ব্যবহারের উপর অনেক গুরুত্ব দিয়ে যাচ্ছি। এ পর্যন্ত সাড়ে ২৩ হাজার স্কুলে মাল্টিমিডিয়া ক্লাসরুম চালু করা হয়েছে। প্রশিক্ষণ দেয়া হয়েছে প্রায় ১ লাখ ২৫ হাজার শিক্ষককে।

গতানুগতিক শিক্ষার বাইরে এসে প্রযুক্তিনির্ভর শিক্ষার মাধ্যমে নতুন প্রজন্মকে শিক্ষিত করার জন্য নিরলস চেষ্টা অব্যাহত রয়েছে জানিয়ে মন্ত্রী বলেন, আধুনিক বাংলাদেশ গড়ার জন্য প্রযুক্তি নির্ভর শিক্ষার কোনো বিকল্প নাই। নতুন প্রজন্মকে বিশ্বমানের শিক্ষায় শিক্ষিত করতে হলে অবশ্যই প্রযুক্তির দিকে নজর দিতে হবে। তাহলেই আমরা বিশ্বের বুকে মাথা উচুঁ করে দাঁড়াতে পারবো।

পরে নুরুল ইসলাম নাহিদ মাল্টিমিডিয়া ক্লাসরুমের ব্যবহার এবং মনিটর করার জন্য ‘মনিটরিং অ্যাপ’ নামের একই মোবাইল অ্যাপলিকেশন উদ্বোধন করেন।

মাধ্যমিক ও উচ্চ শিক্ষা অধিদপ্তরের মহাপরিচালক অধ্যাপক ড. এস এম ওয়াহিদুজ্জামানের সভাপতিত্বে অনুষ্ঠানে বিশেষ অতিথির বক্তব্য রাখেন, কারিগরি ও মাদরাসা শিক্ষা বিভাগের সচিব মো. আলমগীর, মাধ্যমিক ও উচ্চ শিক্ষা অধিদপ্তরের অতিরিক্ত সচিব (উন্নয়ন) মো. মহিউদ্দীন খান, এটুআই প্রকল্পের মহাপরিচালক , অতিরিক্ত সচিব কবির বিন আনোয়ার।

পিএনএস/হাফিজুল ইসলাম

 

@PNSNews24.com

আপনার মন্তব্য প্রকাশ করুন
Developed by Diligent InfoTech