বিশ্ববিদ্যালয়ের ডিজিটাল সংযুক্তি অভিন্ন হচ্ছে

  

পিএনএস ডেস্ক: দেশের বিশ্ববিদ্যালয়গুলোতে সেবার ডিজিটাল সিস্টেমসমূহকে একটি অভিন্ন প্ল্যাটফর্মে আনা হচ্ছে। বৃহস্পতিবার (১৬ জানুয়ারি) রাজধানীর গণপূর্ত ভবনে ছয় দিনব্যাপী ‘ডিজিটাল সার্ভিস ডিজাইন ল্যাব’ উদ্ধোধন অনুষ্ঠানে এ তথ্য জানানো হয়। ডিজিটাল সার্ভিস এক্সিলারেটর, এটুআই এবং তথ্য ও যোগাযোগ প্রযুক্তি বিভাগের সহযোগিতায় বাংলাদেশ বিশ্ববিদ্যালয় মঞ্জুরি কমিশন এ কর্মশালার আয়োজন করে।

অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন তথ্য ও যোগাযোগ প্রযুক্তি বিভাগের সিনিয়র সচিব এন এম জিয়াউল আলম। বিশেষ অতিথি হিসেবে বক্তব্য রাখেন মাধ্যমিক ও উচ্চশিক্ষা বিভাগের অতিরিক্ত সচিব ড. অরুণা বিশ্বাস ও মো. আব্দুল্লাহ আল হাসান চৌধুরী। বিশ্ববিদ্যালয় মঞ্জুরি কমিশনের সদস্য প্রফেসর ড. মো. সাজ্জাদ হোসেনের সভাপতিত্বে অনুষ্ঠানে স্বাগত ভাষণ প্রদান করেন এ টু আইয়ের ফরহাদ জাহিদ শেখ।

অভিন্ন সংযোগের ফলে বিশ্ববিদ্যালয়ের ব্যবস্থাপনা ও সেবার মান উন্নত হবে এবং সেখানে একটি সমন্বিত ব্যবস্থা গড়ে ঊঠবে বলে জানান প্রধান অতিথির বক্তব্যে সচিব জিয়াউল আলম। তিনি বলেন, এর মাধ্যমে ডিজিটাল বাংলাদেশের স্বপ্ন বাস্তবায়নের পথ সুগম হবে। ডিজিটাল প্রযুক্তি সকল ক্ষেত্রে নিশ্চিত করবে। দেশের বিশ্ববিদ্যালয়ে ইউনিফর্মড ইউনিভার্সিটি ম্যানেজমেন্ট সফটওয়্যার ও ইন্টিগ্রেটেড ইউনিভার্সিটি ইনফরমেশন ম্যানেজমেন্ট প্ল্যাটফর্ম তৈরির জন্য এ উদোগ গ্রহণকে সাধুবাদ জানান।

সভাপতির বক্তব্যে প্রফেসর সাজ্জাদ হোসেন বলেন, ‘ডিজিটাল সার্ভিস ডিজাইন ল্যাব’ এর মাধ্যমে সুন্দর একটি ব্যবস্থা তৈরি হবে। কিছু নতুন বিষয় যুক্ত হবে। এটি চতুর্থ শিল্পবিপ্লব ও টেকসই উন্নয়ন লক্ষমাত্রা অর্জনে সহায়তা করবে। ২০৪১ সালের মধ্যে দেশকে উন্নত রাষ্ট্রে পরিণত করতে হলে সেবাসমূহে ইনোভেশনে আনার পরামর্শ প্রদান করেন তিনি।

তিনি বলেন, এ কর্মশালার মাধ্যমে বিশ্ববিদ্যালয়ে ইন্টিগ্রেটেড সিস্টেম তৈরি করা হবে। এর মাধ্যমে বিশ্ববিদ্যালয়ের কাজে স্বচ্ছতা ও দক্ষতা বৃদ্ধি পাবে। প্রতিযোগতামূলক বিশ্বে আমাদের স্নাতকরা ভালো করবে। ইউনিফর্মড ইউনিভার্সিটি ম্যানেজমেন্ট সফটওয়্যার ও ইন্টিগ্রেটেড ইউনিভার্সিটি ইনফরমেশন ম্যানেজমেন্ট প্ল্যাটফর্ম ব্যবহার করে বিশ্ববিদ্যালয়ের শিক্ষক, কর্মকর্তা-কর্মচারী, শিক্ষার্থী যেকোনো সময়ে ও যেকোনো স্থান থেকে একটি প্ল্যাটফর্মের মাধ্যমে সকল সেবা সহজেই প্রদান এবং গ্রহণ করতে পারবেন।

দেশের ৩৬টি পাবলিক ও প্রাইভেট বিশ্ববিদ্যালয়ের শিক্ষক, শিক্ষা মন্ত্রণালয় এবং ইউজিসির পদস্থ কর্মকর্তারা অনুষ্ঠানে অংশগ্রহণ করেন।

পিএনএস/হাফিজ

 

@PNSNews24.com

আপনার মন্তব্য প্রকাশ করুন