যৌন হেনস্তাকারীর নাম মেয়েরা কেন বলে না?

  

পিএনএস ডেস্ক : বলিউডে যৌন হয়রানি এখন অন্যতম আলোচনার বিষয়। বিনোদন জগতে যৌন হয়রানির বিষয়টি মোটেও নতুন নয়। তবে আলোচনাটি নতুন করে উঠে এসেছে পশ্চিমা দুটি গণমাধ্যমের কল্যাণে। গত অক্টোবর মাসে দ্য নিউইয়র্ক টাইমস ও দ্য নিউ ইয়র্কার পত্রিকা সাবেক ‘হলিউড মুঘল’ হার্ভি ওয়াইনস্টিনের যৌন কেলেঙ্কারি বিষয়ে দুটি অনুসন্ধানী প্রতিবেদন প্রকাশ করে।

প্রতিবেদন দুটিতে হলিউডের প্রভাবশালী অভিনেত্রী থেকে শুরু করে উঠতি মডেল, এমনকি ওয়াইনস্টিন কোম্পানির নারী কর্মচারীরা পর্যন্ত হার্ভির যৌন নির্যাতন ও হয়রানির রোমহর্ষক বর্ণনা দেন। এরপর আরও অনেকের কাছ থেকে যৌন হেনস্তাকারীদের নাম বেরিয়ে আসে। এর মধ্যে বলিউডের অনেক নারী তাঁদের যৌন হয়রানির অভিজ্ঞতার কথা জানিয়েছেন। কিন্তু হেনস্তাকারীর নাম তাঁরা কেউ এখনো বলেননি। কেন? সম্প্রতি ভারতীয় তারকা রাধিকা আপ্তে জানিয়েছেন এর কারণ।

‘অহল্যা’ ছবির তারকা রাধিকা আপ্তে বলেন, ‘মূল কারণ হলো ভয়। যারা খুবই উচ্চাকাঙ্ক্ষী, তাঁরা ভয় পান। মনে করেন, যাঁরা যৌন হয়রানি করছেন, তারা তো অনেক ক্ষমতাবান। তাঁদের কারও নাম প্রকাশ্যে আনলে যদি নিজের ক্যারিয়ারে সমস্যা হয়। আমার মনে হয়, বলিউডে যৌন হেনস্তাকারীদের নাম প্রকাশ না করার পেছনে এটাই প্রধান কারণ। কিন্তু এমনটা মোটেও হওয়া উচিত না। সবার এ বিষয়ে আওয়াজ তোলা উচিত।’

এই তারকা বলেন, ‘শুধু বিনোদন জগতেই নয়, যৌন হয়রানির ঘটনা সব জায়গাতেই ঘটছে। আর শুধু নারীরাই এর শিকার নন, অনেক ছেলেও ভুক্তভোগী। কেউ যত উচ্চাকাঙ্ক্ষীই হোক না কেন, সবার আগে না বলা শিখতে হবে। নিজেকে সাহসী হতে হবে। ভরসা করতে হবে নিজের প্রতিভার ওপর।’

এই ‘কৃতী’ তারকার মতে, কেউ একা অন্যায়ের প্রতিবাদ করতে গেলে হয়তো কেউ তার কথা শুনবে না, কিন্তু যদি একসঙ্গে ১০ জন মানুষ কোনো সমস্যা নিয়ে আওয়াজ তোলে, তাহলে অন্যরাও তাদের কথা শুনবে। রাধিকার কথা ঠিক। তবে কে প্রথম যৌন হেনস্তাকারীর নাম বলবেন? রাধিকার বিশ্বাস, কেউ একজনের নাম বললে অন্য ভুক্তভোগীরাও অবশ্যই অনেকের মুখোশ খুলে দেবে। হিন্দুস্তান টাইমস।

পিএনএস/জে এ মোহন

 

@PNSNews24.com

আপনার মন্তব্য প্রকাশ করুন
Developed by Diligent InfoTech