চ্যাটিংয়ের আপত্তিকর প্রস্তাবের অভিযোগ অস্বীকার, জিডি

  

পিএনএস ডেস্ক : অভিনেতা, নির্মাতা এবং ডিরেক্টরস গিল্ডের সভাপতি গাজী রাকায়েতের ফেসবুক ইনবক্সের কয়েকটি আপত্তিকর স্ক্রিনশট এরই মধ্যে সামাজিক যোগাযোগমাধ্যম ফেসবুকে ছড়িয়ে পড়েছে।

স্ক্রিনশটগুলোয় দেখা যায়, একটি মেয়ের সঙ্গে গাজী রাকায়েতের কথোপকথন হচ্ছে। সেখানে গাজী রাকায়েত মেয়েটিকে আপত্তিকর কিছু কাজের প্রস্তাব দেন। তবে একাধিকবার তা অস্বীকার করেছেন গাজী রাকায়েত। গত রোববার সকালে তিনি বলেন, তাঁর ফেসবুক আইডি হ্যাক হয়েছে। পরে তিনি বলেছেন, তাঁর ফেসবুক আইডির পাসওয়ার্ড আরও কয়েকজনের কাছে আছে। সম্ভবত তাদের মধ্যে কেউ এই ফেসবুক আইডি থেকে কাজটি করেছে।

গতকাল সোমবার রাতে গাজী রাকায়েত জানান, এ ব্যাপারে তিনি রাজধানীর আদাবর থানায় সাধারণ ডায়েরি (জিডি) করেছেন। এই সাধারণ ডায়েরিতে নিজের ফেসবুক আইডি হ্যাক হওয়া এবং তা ব্যবহার করার বিষয়টি উল্লেখ করেছেন। তখন তিনি আরও বলেন, পরিচিত কেউ নয়, এই আপত্তিকর কথাগুলো যে বা যারা হ্যাক করেছে, তারাই লিখেছে।

গাজী রাকায়েত বলেন, ‘সপ্তাহজুড়েই আমি চাড়ুনীড়ম উৎসব নিয়ে ব্যস্ত ছিলাম। চারুনীড়ম ইনস্টিটিউট থেকে প্রতিবছর আমি এই উৎসব আয়োজন করি। গত রোববার সন্ধ্যায় জাতীয় গণগ্রন্থাগারের শওকত ওসমান স্মৃতি মিলনায়তনে উৎসবের পুরস্কার বিতরণ অনুষ্ঠান হয়। প্রতিযোগিতা আর প্রদর্শনী নিয়ে আমি এতটাই ব্যস্ত ছিলাম যে অন্য কোনো দিকে খেয়াল করার সুযোগ ছিল না। সব মিলিয়ে খুব চাপের মধ্যে ছিলাম। আমার নামে ফেসবুকে দুটি আইডি আছে। এ সময় দুটি আইডি হ্যাক করা হয়। এই দুটি আইডি থেকেই একটি মেয়ের সঙ্গে কথোপকথন চালানো হয়। পরে এই কথোপকথনের স্ক্রিনশট কৌশলে ছড়ানো হয়। ৬ মার্চ থেকে আমি আমার পেজে ঢুকতে পারছিলাম না।’

এদিকে গতকাল সোমবার রাতে পুরো বিষয়টি নিয়ে একটি ভিডিওবার্তা দেন গাজী রাকায়েত। এ সময় তাঁকে খুবই বিমর্ষ দেখাচ্ছিল। এখানে তাঁর সঙ্গে ছিলেন ডিরেক্টরস গিল্ডের সাধারণ সম্পাদক এস এ হক অলীক, অভিনয় শিল্পী সংঘের সাধারণ সম্পাদক আহসান হাবিব নাসিম, তারিন, জিতু আহসান। এখানে জানানো হয়, গাজী রাকায়েতের দুটি আইডি উদ্ধার করেছেন সাইবার বিশেষজ্ঞ তানভীর হাসান জোহা।

এ সময় সাইবার বিশেষজ্ঞ তানভীর হাসান জোহা বলেন, ‘দেশের বাইরে থেকে হয়তো কেউ কাজটি করেছেন। আমার পরীক্ষা চালাচ্ছি। আশা করছি, শিগগিরই এ ব্যাপারে সব তথ্য জানতে পারব। আর এ ব্যাপারে আইনি ব্যবস্থা নেওয়া হচ্ছে। শুধু ফেসবুক নয়, এতে যে ই-মেইল আইডি ব্যবহার করা হয়, সেটিও হ্যাক হয়েছিল। মূলত ভিপিএন অ্যাড্রেস ব্যবহার করে ই-মেইল ও ফেসবুক প্রোফাইল হ্যাক করা হয়। আমরা এখন হ্যাকারের অবস্থান নির্ধারণ করতে প্রয়োজনীয় ব্যবস্থা নিচ্ছি।’

আহসান হাবিব নাসিম বলেন, বিষয়টি খুবই স্পর্শকাতর। একটি ঘটনা জানার সঙ্গে সঙ্গে এর সত্যতা যাচাই না করে, সত্যি-মিথ্যা না জেনে সেটা পোস্ট আকারে ফেসবুকে ছেড়ে দেওয়া, তা নিয়ে সংবাদ প্রকাশ করা গর্হিত কাজ, আইনত দণ্ডনীয় অপরাধ। তিনি এ ব্যাপারে সবাইকে সচেতন হওয়ার আহ্বান জানান।

এস এ হক অলীক বলেন, ‘যদি কোথাও কোনো সমস্যা হয়, তাহলে সেটি যেন আগে সংগঠনগুলোকে জানানো হয়। সত্যি-মিথ্যা যাচাইয়ের আগেই যদি ফেসবুক আর পত্রিকায় চলে আসে, তাহলে এই ইন্ডাস্ট্রি প্রশ্নবিদ্ধ হয়। আমরা এখন আইনানুগ ব্যবস্থা নিচ্ছি, যাতে ভবিষ্যতে এভাবে কাউকে হেনস্তা হতে না হয়।’-প্রথম আলো

পিএনএস/জে এ /মোহন

 

@PNSNews24.com

আপনার মন্তব্য প্রকাশ করুন
Developed by Diligent InfoTech