ঐশ্বরিয়ার শরীরে ২০ হাজার পাথর!

  

পিএনএস ডেস্ক : একটি গাউনে ২০ হাজার টুকরো দামি স্বারোভস্কি পাথর, ভাবা যায়! আর গাউনটি কে পরেছেন? ঐশ্বরিয়া রাই বচ্চন। কান আন্তর্জাতিক চলচ্চিত্র উৎসবের ৭১তম আসরের লালগালিচায় ষষ্ঠ দিনে গত রোববার এই গাউন পরে হেঁটেছেন তিনি। গাউনটি তৈরি করেছেন লেবানিজ-আমেরিকান ডিজাইনার রামি কাদি। আর ঐশ্বরিয়ার স্টাইলিস্ট ছিলেন আস্থা শর্মা।

লালগালিচায় হাঁটার আগে ঐশ্বরিয়া তাঁর মেয়ের সঙ্গে একটি ছবি শেয়ার করেন ইনস্টাগ্রামে। তাতে দেখা যায়, মেয়েকে আদর করছেন তিনি। আর মা ঐশ্বরিয়া ও ছয় বছরের মেয়ে আরাধ্যর একই পোশাক। মায়ের সঙ্গে মিলিয়ে পোশাক তৈরি করা হয়েছে আরাধ্যর জন্যও। তবে ঐশ্বরিয়ার গাউনটি কাঁধ-খোলা।

১৬ বছর ধরে কান চলচ্চিত্র উৎসবে হাজির হচ্ছেন ঐশ্বরিয়া রাই বচ্চন। মাতৃত্বের কারণে চলচ্চিত্র থেকে কিছুদিন বিরতি নিলেও ফরাসি এই চলচ্চিত্র উৎসব থেকে বিরতি নেননি বলিউডের এই অভিনেত্রী। ২০০২ সালে প্রথম কানে আমন্ত্রণ পান। এরপর থেকে তিনি কানের নিয়মিত অতিথি। একটি প্রসাধনী ব্র্যান্ডের শুভেচ্ছাদূত হয়ে এবারও কানের লালগালিচায় পা পড়েছে তাঁর। প্রথম দিনের মতো তাঁর দ্বিতীয় দিনের পোশাকও গণমাধ্যমে আলোচিত হয়েছে।


এর আগে গত শনিবার ফরাসি ছবি ‘গার্লস অব দ্য সান’-এর প্রদর্শনীতে ফিলিপাইনের ফ্যাশন ডিজাইনার মাইকেল সিনকোর নকশা করা একটি গাউন গায়ে চাপিয়ে হাজির হন ঐশ্বরিয়া। ‘প্রজাপতি’ স্টাইলের গাউনটি ছিল মারমেইড বা মৎস্যকন্যা ছাঁটের। ফিলিপাইনের হলেও মাইকেল সিনকো দুবাইভিত্তিক ডিজাইনার। এই নিয়ে দ্বিতীয়বারের মতো তাঁর নকশা করা পোশাক পরে কানের লালগালিচা মাতালেন ঐশ্বরিয়া। গতবার এ চলচ্চিত্র উৎসবের ৭০তম আসরে এই নায়িকা উপস্থিত হয়েছিলেন রূপকথার রাজকন্যা ‘সিনড্রেলা’ রূপে। আর এবার এসেছেন ‘প্রজাপতি’র বেশে। ‘হারপার্স বাজার’ সাময়িকীকে দেওয়া একটি সাক্ষাৎকারে ডিজাইনার মাইকেল বলেন, ‘এই গাউনের মাধ্যমে আমি একটি গুটিপোকার প্রজাপতি হয়ে ওঠার সুপ্ত অহংকারকে ফুটিয়ে তোলার চেষ্টা করেছি।’ টাইমস অব ইন্ডিয়া, হিন্দুস্তান টাইমস

পিএনএস/জে এ /মোহন

 

@PNSNews24.com

আপনার মন্তব্য প্রকাশ করুন
Developed by Diligent InfoTech