সৌন্দর্য নিয়ে যা বললেন জোলি

  

পিএনএস ডেস্ক : চলচ্চিত্রে নারীর ‘সৌন্দর্য’ একটা বড় ব্যাপার। রুপালি পর্দায় সুন্দর মুখ ক্যারিয়ারকে টেনে নিয়ে যায় অনেক দূর। বয়স বাড়ার সঙ্গে সঙ্গে বাইরের সৌন্দর্য কমে, ক্যারিয়ারেও ভাটা পড়ে। এটাই বিনোদন কারখানার সাধারণ দৃশ্য। কিন্তু এ কথা মেনে নিতে চাইছেন না অভিনেত্রী অ্যাঞ্জেলিনা জোলি। এক সাক্ষাৎকারে তিনি বলেছেন, চল্লিশ হলেই নারীরা ফুরিয়ে যান, কথাটা মোটেই ঠিক নয়।

অ্যাঞ্জেলিনা জোলি অবশ্য বাইরের সৌন্দর্যের সঙ্গে জোর দিয়েছেন ভেতরের সৌন্দর্যকে। তাঁর মতে, বয়স বাড়ার সঙ্গে সঙ্গে অন্তরের সৌন্দর্য বাড়ে। মানুষ আরও সুন্দর হয়।

৪৩ বছর বয়সী এই অভিনেত্রী এখনো হলিউডে সেরা সুন্দরীদের একজন। জোলি মনে করেন, বয়স যখন কম ছিল, তার থেকে এখন তিনি কোনোভাবেই কম সুন্দর নন। জোলি সবাইকে অনুপ্রেরণা দিচ্ছেন নারীদের প্রতি সাধারণ লোকদের এই সব দৃষ্টিকোণকে বদলাতে।

ভোগ অস্ট্রেলিয়াকে দেওয়া সাক্ষাৎকারে তিনি বলেছেন, ‘এটা কখনোই সত্য নয়, চল্লিশ বছরের পরে নারীর সৌন্দর্য ফুরিয়ে যায়; বরং বুদ্ধিমত্তা, বোঝাপড়ার সক্ষমতা, পরিষ্কারভাবে চিন্তা করার ক্ষমতা-এগুলো বয়স বাড়ার সঙ্গে সঙ্গে আসে। এগুলোও নারীর সৌন্দর্য ও বৈশিষ্ট্যের অংশ। আমার কাছে মনে হয়, নারী-পুরুষনির্বিশেষে সবারই বয়স বাড়লে সৌন্দর্য বাড়ে।’

অ্যাঞ্জেলিনা জোলি ও ব্র্যাড পিট ছিলেন হলিউডের অন্যতম সেরা তারকা জুটি। সে জুটিও ভেঙে গেছে ২০১৬ সালে। শোনা যাচ্ছে, এখনো নাকি জোলিকে ভালোবাসেন পিট। পিটের কাছের কিছু লোক এ কথা জানিয়েছেন। বিয়ে ভাঙার পরে আবার জোড়া লাগার ঘটনাও চলচ্চিত্রপাড়ায় দেখা যায়।

তবে ‘ব্র্যাঞ্জেলিনা’র এক হওয়ার সম্ভাবনা কতটুকু, তা নিয়ে সংশয় আছে। অ্যাঞ্জেলিনা এখন ব্যস্ত ম্যালেফিসেন্ট টু নিয়ে। ২০১৪ সালে ছবিটির প্রথম কিস্তি প্রকাশিত হয়। দ্বিতীয় কিস্তি ২০২০ সালে মুক্তি পাওয়ার কথা আছে। সূত্র: এস শোবিজ

পিএনএস/জে এ

 

@PNSNews24.com

আপনার মন্তব্য প্রকাশ করুন
Developed by Diligent InfoTech