ঢাকা মাতালেন পাকিস্তানি শিল্পী

  

পিএনএস ডেস্ক: চতুর্থবারের মতো রাজধানীর আর্মি স্টেডিয়ামে বসেছিল দক্ষিণ এশিয়ার সবচেয়ে বড় আন্তর্জাতিক লোকসংগীত উৎসব-২০১৮। শনিবার পাকিস্তানি শিল্পী শাফকাত আমানাত আলীর সুরে হারিয়ে শেষ হলো এবারের ফোক ফেস্ট। রাত সাড়ে ১০টায় স্টেজে উঠেন তিনি।

সুরের জাদু ছড়িয়ে সবাইকে মুগ্ধ করেছেন তিনি। গেয়েছেন অনেকগুলো গান। বাংলা ভাষায় বললেন, কেমন আছ ঢাকা? ভালো আছ?

গাইলেন বাংলা গান, কেউ কোনদিন আমারে তো কথা দিল না, বিনি সুতোর মালাখানি গাঁথা হলো না। এক পর্যায়ে স্টেজ থেকে নেমে দর্শক সারিতে মিলে যান। নিজে গায়তে থাকেন আর দর্শকদেরও গাওয়ান।

তার পারফর্মে মুগ্ধ দর্শক-শ্রোতা। অনেক দর্শকের সঙ্গে হাত মেলান কোলাকুলি করেন। টানা একঘণ্টা গেয়ে সুরে ভাসান সবাইকে। পাকিস্তানের স্বনামধন্য ওস্তাদ আমানাত আলী খানের ছেলে শাফকাত আমানাত আলী। পাটিয়ালা ঘরানার নবম বংশধর তিনি। চার বছর বয়স থেকেই হিন্দুস্তানি ক্লাসিক্যাল সংগীতের তামিল নেন তিনি।

শাফকাত আমানাত আলীর গায়কীতে তার বাবা এবং চাচা ওস্তাদ ফাতেহ আলী খান সাহেবের প্রভাব রয়েছে। সেই সঙ্গে রোশনারা বেগমের গায়কী থেকে তিনি গানের অনুপ্রেরণা পেয়ে থাকেন। ক্লাসিক্যাল সংগীতে পারদর্শী শাফকাত আমানাত আলী সুফি এবং পাকিস্তানের লোকসংগীতের জন্য বিশ্বের সংগীতমহলে বেশ সমাদৃত।

তার আগে শনিবার রাত ৯টায় গেয়েছেন বাংলাদেশের অর্ণব। সান ফাউন্ডেশনের উদ্যোগে বৃহস্পতিবার এই আয়োজনের উদ্বোধন করেছিলেন অর্থমন্ত্রী আবুল মাল আবদুল মুহিত। বৃহস্পতিবার প্রথমদিন দর্শক ছিল চোখেপড়ার মতো। গানের তালে তালে ভালোই কেটেছে এই আয়োজনের দ্বিতীয় দিনও। চমকের মধ্য দিয়ে পর্দা নামলো এই আয়োজনের।

উৎসবের শেষদিন আরও গেয়েছেন বাংলাদেশের বাউল কবির শাহ ও ব্যান্ড দল নকশীকাঁথার ও স্পেনের লাস মিগাস ব্যান্ড দল।

পিএনএস/হাফিজুল ইসলাম

 

@PNSNews24.com

আপনার মন্তব্য প্রকাশ করুন
Developed by Diligent InfoTech