জয়া আহসানের রূপের গোপন রহস্য ফাঁস!

  

পিএনএস ডেস্ক : দুই বাংলা দাপিয়ে বেড়ানো অভিনেত্রী জয়া আহসান। একের পর এক সিনেমার মাধ্যমে মুগ্ধ করেছন দুই বাংলার অগণিত দর্শকদের। শুধু অভিনয়েই নয় রূপের ঝলকানিতেও বুদ করছেন তার ভক্তদের। তবে অভিনয়ের জন্য সদাই ছুটতে হয় কলকাতা টু ঢাকা। কখনো ইনডোর, আবার কখনো বা আউটডোর শুটিং করতে হয় এই অভিনেত্রীর। এতো কিছুর মাঝেও দিন শেষে নিজের রূপের সৌন্দর্য ধরেই রাখতে হয়। কিভাবে পারেন তিনি? এবার সেই রহস্যই জানালেন জয়া।

তিনি বলেন, অভিনয়ের ব্যস্ততার মাঝেও একজন অভিনেত্রী হিসেবে রূপ সচেতনতাও খুবই জরুরি। তাই আমি সব সময় আমার রূপের যত্নে হারবাল প্রসাধনীই বেশি ব্যবহার করি। হারবাল প্রোডাক্টে কোন পার্শ্ব প্রতিক্রিয়া নেই। সহজেই যে কেউ ব্যবহার করতে পারেন। তাই আমি নিজে খুব হারবাল প্রোডাক্টেই বিশ্বাস করি।

এসব কথাগুলো জয়া আহসান বলছিলেন শনিবার রাতে। সে সময় তিনি রাজধানীর অভিজাত এলাকা গুলশান -১ নম্বরে শাহনাজ হোসাইন ফ্রান্সিস সেলুনের উদ্বোধন করেন। এ সময় শোবিজের আরো অনকের পাশাপাশি উপস্থিত ছিলেন প্রতিষ্ঠানটির কর্ণধার আয়েশা সিদ্দিকি রশ্মিসহ এর সব কর্মকর্তা ও বিউটিশিয়ানরা।

এ সময় জয়া আহসান বলেন, এরকম একটি বিউট সেলুন আমাদের এখানে খুবই দরকার ছিল। সেটা সাহস নিয়ে শাহনাজ হোসাইন রশ্মি আত্নপ্রকাশ করল। এটা সত্যি সাহসের কাজ। আর আমি শাহনাজ হোইনের ভীষন ভক্ত। কারণটা হচ্ছে, তিনি হারবাল প্রোড্রাক্ট নিয়ে কাজ করেন। যখন আমাকে প্রথম ইনবাইট করলেন আমি তখন ভালো করে দেখে নিলাম, বুঝে নিলাম তারা কেমন মান সম্পূর্ণ কাজ করে। দেখলাম তারা খুবই ভালো মানের কাজ করেন। আমি ভরসা রাখছি শাহনাজ হোসাইন ফানসিস'র উপর আপনারাও রাখতে পারেন।

এ সময় জয়া আহসান স্যালুনটি ঘুরে দেখেন। এই পার্লার থেকে জয়া আহসানকে আজীবন প্রসাধনী সেবা প্রদান করা হবে বলে জানান আয়শা সিদ্দিকা রশ্মি। আর মাস জুড়েই গ্রাহকদের জন্য ১৫% ছাড়ের ব্যবস্থাও রাখবেন।

এদিকে গেল ৪ জানুয়ারি কলকাতায় মুক্তি পেয়েছে জয়া অভিনীত ছবি ‘বিজয়া’। কৌশিক গাঙ্গুলি পরিচালিত এ সিনেমা মুক্তির পর দর্শকদের প্রশংসায় ভাসছেন জয়া। এবার মুক্তির অপেক্ষায় রয়েছে আরো একটি সিনেমা। নাম ‘বৃষ্টি তোমাকে দিলাম’। এই ছবিটির ট্রেলারে এরই মধ্যে সবার নজর কেড়েছেন জয়া।


পিএনএস/এএ

 

@PNSNews24.com

আপনার মন্তব্য প্রকাশ করুন
Developed by Diligent InfoTech