তারা সবাই সাইবার সন্ত্রাসীর শিকার!

  

পিএনএস ডেস্ক :ইন্টারনেটের ব্যবহার বৃদ্ধির সঙ্গে সঙ্গে আমাদের দেশে সাইবার ক্রাইমের পরিমাণও দিন দিন বাড়ছে। অপরাধীরা বিভিন্ন ধরনের ফাঁদ পেতে ইন্টারনেট ব্যবহারকারীদের ব্যক্তিগত তথ্য চুরি করে নানাভাবে হয়রানি করার চেষ্টা করছে। ব্ল্যাকমেইল করে অর্থ হাতিয়ে নিচ্ছে বা সামাজিকভাবে হেয় করছে। একরকম সাইবার বা ভার্চুয়াল সন্ত্রাসীর রুপ নিয়েছে তারা। আর এর বেশীরভাগ ভুক্তভোগী হচ্ছেন নারী তারকারা।

এর সাম্প্রতিক শিকার ‘মিস ওয়ার্ল্ড বাংলাদেশ’ জেসিয়া ইসলাম। বেশ কিছুদিন ধরেই তাকে নিয়ে সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে চলছে নানা আলোচনা-সমালোচনা। সালমান মুক্তাদিরের সঙ্গে প্রেমের সম্পর্ক নিয়েও ট্রল হচ্ছে। তৈরি হচ্ছে ব্যঙ্গাত্মক ভিডিও।

এসবের বিরুদ্ধে ব্যবস্থা নিতে এবার আইনের আশ্রয় নিয়েছেন জেসিয়া। ১২ ফেব্রুয়ারি ঢাকা মেট্রোপলিটন পুলিশের সাইবার সিকিউরিটি ও ক্রাইম ইউনিটের অ্যাডিশনাল ডেপুটি কমিশনার নাজমুল ইসলামের কাছে অভিযোগ দায়ের করেছেন।

এদিকে তার সাবেক প্রেমিক ইউটিউবার সালমান মুক্তাদিরও শিকার এমন অনলাইন সন্ত্রাসের। নিজের নতুন প্রকাশিত ভিডিও গানটি নিয়ে চিন্তিত সালমান মুক্তাদির। কেননা তার ভিডিওটি বিভিন্ন খারাপ সাইটগুলোতে ব্যবহার করা হচ্ছে। এ ব্যাপারে সালমান মুক্তাদির বলেন, ভিডিওটাকে ভিন্ন দিকে প্রবাহিত করা হচ্ছে। এতে করে আমাকে আমার ভক্তদের কাছে খারাপ প্রমাণিত করা হচ্ছে।

অন্যদিকে সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে বেশ সরব ছিলেন ভাবনা ও মাহিয়া মাহি। দুজনের ফ্যান-ফলোয়ারও অনেক। নতুন নতুন কাজের খবর ভক্তদের সঙ্গে শেয়ার করতেন ফেসবুকের মাধ্যমেই। কিন্তু দুজনের আইডিই হ্যাক্ড হয়েছে।

এক মাস ধরে চেষ্টা করেও মাহিয়া মাহি আইডি ফেরত পাননি। শেষে হতাশ হয়ে নতুন আইডি খুলেছেন। মাহি বলেন, ‘আমার ব্যবহূত আইডিটা হ্যাক করে নাম বদল করা হয়েছে। এখন নতুন নাম দিয়ে আমার ছবি ব্যবহার করে আইডিটা কে বা কারা চালাচ্ছে।

শিগগিরই আইনি ব্যবস্থা নেওয়ার কথা ভাবছি।’ এদিকে এখনো চেষ্টা চালিয়ে যাচ্ছেন ভাবনা। বললেন, ‘শুটিংয়ের জন্য ঢাকার বাইরে থাকায় আইনি ব্যবস্থা নিতে পারছি না। কী করব বুঝেও উঠতে পারছি না। সবাইকে অনুরোধ করব আমার আইডি থেকে টাকা-পয়সা সংক্রান্ত ব্যাপারে সতর্ক থাকতে।’

পিএনএস/এএ

 

@PNSNews24.com

আপনার মন্তব্য প্রকাশ করুন
Developed by Diligent InfoTech