প্রখ্যাত লোকসংগীত শিল্পী অমর পাল আর নেই

  

পিএনএস ডেস্ক : দুই বাংলার প্রখ্যাত লোকসংগীত শিল্পী ও সংগীত পরিচালক অমর পাল আর নেই।

হৃদরোগে আক্রান্ত হয়ে শনিবার (২০ এপ্রিল) সন্ধ্যা ৫টা ৫০ মিনিটে কলকাতার এসএসকেএম হাসপাতালে শেষ নিঃশ্বাস ত্যাগ করেন তিনি। মৃত্যুকালে তাঁর বয়স হয়েছিল ৯৭ বছর।

এর আগে শনিবার দুপুরে কলকাতায় নিজ বাড়িতে তাঁর সেরিব্রাল অ্যাটাক হয়। তাৎক্ষণিকভাবে তাকে এসএসকেএম হাসপাতালে নিয়ে যাওয়া হয়। অবস্থার অবনতি হলে তাঁকে ওই হাসপাতালের আইটিইউ ইউনিটে স্থানান্তরিত করা হয়।

অবিভক্ত বাংলার ব্রাহ্মণবাড়িয়ায় (বর্তমানে বাংলাদেশের ব্রাহ্মণবাড়িয়া জেলা) ১৯২২ সালে জন্মগ্রহণ করেন অমর পাল। দীর্ঘ লোকসঙ্গীত জীবনে পল্লীগীতি থেকে ভাটিয়ালী, সারি, জারি, বাউল সহ বহু জনপ্রিয় গান উপহার দিয়ে গেছেন এই প্রবাদপ্রতিম শিল্পী। সত্যজিৎ রায়ের ছবি ‘হীরক রাজার দেশ’-এ তাঁর গাওয়া ‘কতই রঙ্গ দেখি দুনিয়ায়’ গানটি চিরস্মরণীয় হয়ে আছে।

এছাড়াও অমর পালের জনপ্রিয় ও বিখ্যাত গানগুলোর মধ্যে- ‘‌প্রভাত সময়ে শচীর আঙিনা মাঝে’, ‘জাগো হে এ নগরবাসী’, ‘রাই জাগো’, ‘প্রভাতে গোবিন্দ নাম’, ‘রাই জাগো গো’, ‘ভারতী গৌরাঙ্গ লইয়া’, ‘হরি দিন তো গেল’, ‘মন রাধে রাধে’, ‘বৃন্দাবন বিলাসিনী’, ‘জাগিয়া লহো কৃষ্ণ নাম’, ‘আমার গৌর কেনে’, ‘আমি কোথায় গেলে’ উল্লেখ্যযোগ্য। ‌

সুদীর্ঘ সংগীতময় জীবনে ভারত সরকারের সংগীত-নাটক আকাদেমি পুরস্কার, পশ্চিমবঙ্গ সরকারের লালন পুরস্কারে ভূষিত হয়েছেন তিনি। কাজ করেছেন বহু বাংলা ছবিতে সংগীত পরিচালক হিসেবে।

শৈশবেরই মা দুর্গাসুন্দরী পালের কাছে শাস্ত্রীয় সঙ্গীতের দীক্ষা নিয়েছিলেন অমর পাল। দেশভাগের পর ১৯৪৮ সালে আকাশবাণীর গীতিকার শচীন্দ্র নাথ ভট্টাচার্যের সঙ্গে কলকাতায় যান। ১৯৫১ সালে তাঁর প্রথম গান সম্প্রচারিত হয় আকাশবাণীতে। প্রথম লোকসঙ্গীত শিল্পী হিসেবে আকাশবাণীতে গান গেয়েছিলেন অমর পাল।

এদিকে বাংলা প্রভাতী সঙ্গীতের প্রাণপুরুষ অমর পালের মৃত্যুতে গভীর শোক প্রকাশ করেছেন পশ্চিমবঙ্গের মুখমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়। এক শোকবার্তায় মমতা বলেন, ‘বিশিষ্ট লোকসঙ্গীত শিল্পী অমর পালের মৃত্যুতে আমি গভীর শোক প্রকাশ করছি। তিনি আজ ৯৬ বছর বয়সে কলকাতায় প্রয়াত হয়েছেন। তাঁর মৃত্যুতে বাংলা লোকসঙ্গীতের জগতে এক অপূরণীয় ক্ষতি হল।’

শোকবার্তায় অমর পালের আত্মার শান্তি কামনা করে শোকসন্তপ্ত পরিবার ও স্বজনদের প্রতি সমবেদনা জানান রাজ্যের মুখমন্ত্রী।

গুণী এই শিল্পীর চলে যাওয়ায় এপার-ওপার দুই বাংলায় সঙ্গীতাঙ্গনে শোকের ছায়া নেমে এসেছে।

পিএনএস/এএ

 

@PNSNews24.com

আপনার মন্তব্য প্রকাশ করুন
Developed by Diligent InfoTech