হেলেনাকে মাহফুজুর, ‘কতটুকু ফাজিল হইলে মানুষ এমন কাজ করে?’

  

পিএনএস ডেস্ক : ফেসবুকে নারী উদ্যোক্তা হেলেনা জাহাঙ্গীরের একটি স্ট্যাটাস তুমুল আলোচনা তৈরি করে। স্ট্যাটাসে তিনি লিখেন, এইমাত্র মাহফুজুর রহমানের সঙ্গে ডুয়েট গান করার অফার পেলাম। কী করব বুঝতে পারছি না। বন্ধুদের পরামর্শ চাই।

হেলেনা জাহাঙ্গীরের এ স্ট্যাটাসটি চোখে পড়ে এটিএন বাংলার চেয়ারম্যান ড. মাহফুজুর রহমানের। এটা পড়ে ভীষণ রেগে যান তিনি। ফোন করে হেলেনা জাহাঙ্গীরকে ক্ষুব্ধ প্রতিক্রিয়া জানান। সামাজিক যোগাযোগমাধ্যমে মাহফুজুর রহমানের সঙ্গে হেলেনা জাহাঙ্গীরে ফোনালাপের অডিওটি ছড়িয়ে পড়ে। ভাইরাল হওয়া ফোনালাপটি নিচে তুলে ধরা হলো।

ড. মাহফুজুর রহমান : আমাকে নিয়ে ফেসবুকে আপনাকে স্ট্যাটাস কে দিতে বলছে?

হেলেনা জাহাঙ্গীর : ভাইয়া, আমাকে কয়েকজন অফার করছে আপনার সঙ্গে গান গাওয়ার জন্য।

ড. মাহফুজুর রহমান : মানুষ অফার করলেই ফেসবুকে স্ট্যাটাস দেবেন? ফাজিল মার্কা কাজ করেন। কতটুকু ফাজিল হইলে মানুষ এমন কাজ করে। আপনি এর আগেও ফেসবুক স্ট্যাটাস দিয়ে আমাকে ডুবাইছেন। কোয়ালিটি থাকলে নিজের পায়ে দাঁড়ান। এসবের মাঝে আমাকে কোনো জড়াইছেন। আপনি কি গাঁধা? যে একজন বললেই লিখবেন।

হেলেনা জাহাঙ্গীর : এখানে কি খারাপ কাজ হয়েছে কিছু?

ড. মাহফুজুর রহমান : কেন হয়নি, আজাইরা কথা। আপনাকে কি আমি রিকোয়েস্ট করছি যে আপনার সঙ্গে ডুয়েট করব?

হেলেনা জাহাঙ্গীর : না, আপনি করেননি; যাঁরা গানের ক্যাসেট বের করেন, তারা অফার দিয়েছেন। আপনি কেন অফার করবেন।

ড. মাহফুজুর রহমান বলেন : আপনার মতো গাঁধা দুনিয়ার লোক না। পারলে নিজের কোয়ালিটি দিয়ে পপুলার হন। আপনি কি আমার নাম জড়ানোর আগে আমাকে জিজ্ঞাসা করেছেন?

হেলেনা জাহাঙ্গীর : আপনি কি পড়েছেন লেখাটা, এখানে কী লিখা আছে আপনি অফার করছেন? আপনি রাগারাগি করছেন কেন। আপনি কি পড়েছেন?

ড. মাহফুজুর রহমান : অবশ্যই, সকাল বেলায় দু-তিনজন আমাকে দেখিয়েছে লেখাটা।

হেলেনা জাহাঙ্গীর : এখানে কী লেখা আছে?

ড. মাহফুজুর রহমান : আপনি লিখেছেন ‘এইমাত্র মাহফুজুর রহমানের সঙ্গে ডুয়েট গান করার অফার পেলাম।’ তার মানে কি মাহফুজুর রহমান আপনাকে অফার করেছে?

হেলেনা জাহাঙ্গীর : আমাকে কয়েকজন সাংবাদিক অফারটা করেছে। এটা কি আমি লিখতে পারি না। সেখানে তো লেখা নেই যে আপনি আমাকে অফার করছেন।

ড. মাহফুজুর রহমান: আপনি আমার নাম জড়ানোর আগে আমাকে কি জিজ্ঞেস করেছেন?

এরপর আরো রেগে গিয়ে অস্পষ্টভাবে কিছু বলে ফোনটা কেটে দেন মাহফুজুর রহমান।

পিএনএস/এএ

 

@PNSNews24.com

আপনার মন্তব্য প্রকাশ করুন
Developed by Diligent InfoTech