মাকে খুন করে ৯১১-এ কল করে টারজানের ছেলে

  


পিএনএস ডেস্ক: ‘টারজান’খ্যাত অভিনেতা রন এলির স্ত্রী ভ্যালেরিকে (৬২) ক্যালিফর্নিয়ার বাড়িতে ছুরিকাঘাতে খুন করা হয়। তাদের ৩০ বছর বয়সী ছেলে ক্যামেরুন এলিই নিজ মাকে হত্যা করেছে। পরে পুলিশের গুলিতে ক্যামেরুনেরও মৃত্যু হয়।

ক্যামেরুন ছাত্র হিসেবে খুবই মেধাবী ছিলেন। হার্ভাড থেকে স্নাতক করেছেন। শিক্ষকরাও তার প্রশংসা করতেন। নানা সাক্ষাৎকারে ক্যামেরুনের প্রশংসা করেছেন রন এলিও। কিন্তু সেই ছেলে কেন মাকে খুন করল তার জবাব পাওয়া যায়নি।

মাকে খুনের পর ক্যামেরুনই জরুরি ভিত্তিতে ৯১১ নম্বরে কল করে পুলিশ ডাকেন। বাবার ওপর খুনের দায় চাপানোর ব্যর্থ চেষ্টা করেন তিনি। পুলিশকে ক্যামেরুন জানান, তার বাবা রন এলি স্ত্রী ভ্যালেরির ওপর হামলা চালিয়েছেন।

কিন্তু ঘটনা ছিল ভিন্ন। টারজান নিজেই খুন করে মাকে। টারজান ঠিকমতো কথাই বলতে পারেন না। নড়াচড়াও করতে পারেন না। তিনি জানান, তার ছেলের কারণেই তিনি হারিয়েছেন প্রিয়তমা স্ত্রীকে।

৯০ মিনিট পর বাড়িটির বাইরে ক্যামেরনকে খুঁজে পায় পুলিশ। পরে তাকে গুলি করে হত্যা করা হয়।

রন এলি জনপ্রিয় এনবিসি সিরিজ ‘টারজান’ (১৯৬৬-১৯৬৮) অভিনয় করেছিলেন। ৩৫ বছর আগে মিস ফ্লোরিডা ভ্যালেরিকে বিয়ে করেন রন এলি। ক্যামেরুনসহ তাদের তিন সন্তান। তাদের দেখাশুনা ও বেড়ে উঠায় সাহায্য করতে হলিউড ক্যারিয়ার ছেড়ে দিয়েছিলেন ৮১ বছর বয়সী রন এলি।

পিএনএস/আনোয়ার

 

@PNSNews24.com

আপনার মন্তব্য প্রকাশ করুন
Developed by Diligent InfoTech