‘কুৎসিত’ শুনে বেড়ে ওঠা মেয়েটি এখন মিস ইউনিভার্স

  

পিএনএস ডেস্ক : গায়ের রং কালো। চুল দেখলে আর দশজন নারীর মতো মনেই হয় না। দক্ষিণ আফ্রিকার জোজিবিনি তুনজিকে এসব কারণে ‘কুৎসিত’ বলতো তার দেশের একাংশ। হার না মানা সেই জোজিবিনি সৌন্দর্যের সংজ্ঞা পাল্টে দিয়ে ছিনিয়ে নিয়েছেন মিস ইউনিভার্স-২০১৯ সালের খেতাব।

সুন্দরী প্রতিযোগিতার বিশ্ব আসরে আসার পর তুনজি একাধিকবার তার সেই পুরোনো দিনের বঞ্চনার কথা বলেছেন। রবিবার রাতে খেতাব জয়ের পরও বললেন, ‘আমি এমন একটি বিশ্বে বেড়ে উঠেছি, যেখানে আমার মতো মেয়েদের চামড়ার রং এবং চুলের কারণে সুন্দরীদের কাতারে ফেলা হয় না। কেউ কেউ তো কুৎসিতও বলে। আমি মনে করি আজ থেকেই এটা থামানোর সময়।’

যারা চেহারা নিয়ে হতাশায় ভোগেন তাদের প্রতিও বার্তা দিয়েছেন ‘সত্যিকারের’ এই সুন্দরী, ‘আমি চাই বাচ্চারা আমার দিকে তাকাক। আমার মুখ দেখুক। দেখাতে চাই আমাতেই ফুটে ওঠে তাদের মুখ।’

এদিন রাতে আটলান্টায় ২০১৮ সালের মিস ইউনিভার্স ফিলিপাইনের ক্যাটরিওনা গ্রে তুনজির মাথায় মুকুট পরিয়ে দেন।

এবারের প্রতিযোগিতায় প্রথম রানার আপ হয়েছেন মিস পুয়ের্তোরিকো ম্যাডিসিন অ্যান্ডারসন এবং দ্বিতীয় রানার আপ মিস মেক্সিকো সোফিয়া আরাগন।

পিএনএস-জে এ

 

@PNSNews24.com

আপনার মন্তব্য প্রকাশ করুন
Developed by Diligent InfoTech