শ্রীদেবীর শেষ স্পর্শ শেয়ার জাহ্নবীর

  

পিএনএস ডেস্ক: দু’বছর হয়ে গিয়েছে শ্রীদেবী নেই। দুবাইয়ের এক ফাইভস্টার হোটেলের বাথটবের রক্তাক্ত জলে ভেসে উঠেছিল তার নিথর দেহ। মৃত্যু, স্বেচ্ছামৃত্যু, ষড়যন্ত্র নাকি খুন? বিতর্ক আজও অব্যাহত। আরবসাগরের বুকে এখনো ভেসে বেড়ায় তার নীরব কলোরব।

মা নেই, আজও বিশ্বাস হয় না জাহ্নবীর। কত কিছু বলার ছিল মাকে। কত আবদার-আদর বাকি ছিল তার। শেষবার কী কথা হয়েছিল মা-মেয়ের? কর্ণ জোহরের শো-য়ে সেই স্মৃতিচারণায় চোখ ভিজে এল জাহ্নবীর।

২৪ ফেব্রুয়ারি, ২০১৮। মারা যান শ্রীদেবী। মেয়ে জাহ্নবী তখন নতুন ছবির শুটিং নিয়ে বেজায় ব্যস্ত। ২৩ ফেব্রুয়ারি রাতে কিছুতেই ঘুম আসতে চায় না তার। মা’র কাছে আবদার করেন ‘ঘুম পাড়িয়ে দাও’। শ্রীদেবীর হাতে তখন একগাদা কাজ। প্যাকিং বাকি, বাড়ির কাজ। কিন্তু মেয়ের আবদার কি ফেলা যায়?

জাহ্নবী শুয়ে পড়লে আসতে আসতে মেয়ের মাথার কাছে বসে হাত বোলাতে থাকেন শ্রীদেবী। মেয়ে তখন আধোঘুমে। মায়ের হাতের ছোঁয়ায় ক্রমশ চোখের পাতা ভারি হতে থাকে তার। ঘুম লাগা চোখেই বেশ বুঝতে পারছিলাম মা মাথায় হাত বুলিয়ে দিচ্ছে, বলেছিলেন জাহ্নবী। পরের দিন ভোর বেলা শুটিং ছিল। তাই ‘মা আসছি’ আর বলা হয়নি তার। মা-ও উড়ে গিয়েছিলেন বাণিজ্যনগরীতে।

এর পরেই এক মস্ত ধাক্কা। খবর আসে শ্রীদেবী আর নেই। গোটা বিশ্বের সময় হঠাৎই থমকে গিয়েছিল। কী করে সম্ভব? কেঁদে উঠেছিল বলিউড। মা’কে আজও মিস করেন জাহ্নবী। মিস করেন তার গায়ের গন্ধ। অপেক্ষা করেন, কবে মা আসবে? মায়ের আদরে তিনি ঘুমিয়ে পড়বেন নিশ্চিন্তে।

পিএনএস/এএ

 

@PNSNews24.com

আপনার মন্তব্য প্রকাশ করুন