গ্রেপ্তারের কিছুক্ষণ পরই যে শর্তে জামিন পেল দেবাশীষ

  

পিএনএস ডেস্ক: প্রতারণা অভিযোগে বুধবার (২৮ অক্টোবর) গ্রেপ্তার হন চলচ্চিত্র নির্মাতা দেবাশীষ বিশ্বাস। পরবর্তীতে টাকা ফেরত দেয়ার শর্তে জামিন পেয়েছেন তিনি। অভিযোগে উল্লেখিত টাকা শুক্রবার (৩০ অক্টোবর) ফেরত দেয়ার প্রতিশ্রুতি দিলে তাকে জামিন দেন আদালত।

বুধবার (২৮ অক্টোবর) আদালতে আত্মসমর্পণ করে প্রতারণা মামলা থেকে জামিন আবেদন করেন দেবাশীষ বিশ্বাস। এ সময় ঢাকার অতিরিক্ত মেট্রোপলিটন ম্যাজিস্ট্রেট মোহাম্মদ আসাদুজ্জামান নূর তাকে গ্রেপ্তার করে কারাগারে পাঠানোর আদেশ দেন।

তবে কিছুক্ষণ পর চুক্তি অনুযায়ী নেওয়া টাকা ফেরত দেয়ার প্রতিশ্রুতিতে আইনজীবী খন্দকার মুহিবুল হাসান আপেলের মাধ্যমে জামিন আবেদন করেন দেবাশীষ। সেই শর্তে তার জামিন মঞ্জুর করেছেন আদালত।

মামলার অভিযোগ থেকে জানা গেছে, ২০১৯ সালের ৩০ জুলাই পিএনটিভি ইউটিউব চ্যানেলের মালিক লিটন সরকার ইমন নামে একব্যক্তির সঙ্গে একটি বাণিজ্যিক চুক্তি করেন দেবাশীষ বিশ্বাস। চুক্তি অনুযায়ী দেবাশীষের মা গায়েত্রী বিশ্বাস প্রযোজিত চারটি বাংলা চলচ্চিত্র মায়ের মর্যাদা, শুভ বিবাহ, অপেক্ষা এবং অজান্তে ইউটিউব চ্যানেলে প্রচার করতে ৬০ বছরের জন্য ১ লাখ ৪০ হাজার টাকায় কিনে নেয় পিএনটিভি ইউটিউব চ্যানেল।

তিনি ছবিগুলো ইউটিউব চ্যানেলে আপলোড করলে অন্য একটি ইউটিউব চ্যানেল কর্তৃপক্ষ তার চ্যানেল বন্ধ করে দেন। পরে খোঁজ নিয়ে বাদী জানতে পারেন ২০১৭ সালে এ চারটি চলচ্চিত্র ইউটিউব চ্যানেলে আপলোড করার আগেই আসামিরা অন্য কারো কাছে বিক্রি করেছিলেন। যার ফলে ওই ইউটিউব চ্যানেল কর্তৃপক্ষ কপিরাইট ইস্যুতে ছবিগুলো আপলোড করার পর লিটন সরকার ইমনের চ্যানেল বন্ধ করে দেয়।

ওই ঘটনায় ২০১৯ সালের ৮ সেপ্টেম্বর ঢাকার মেট্রোপলিটন ম্যাজিস্ট্রেট আদালতে লিটন সরকার ইমন বাদী হয়ে দেবাশীষ বিশ্বাসের নামে প্রতারণার মামলা করেন।

পিএনএস/এএ

 

@PNSNews24.com

আপনার মন্তব্য প্রকাশ করুন