অফিসে স্বাস্থ্য রক্ষা

  


পিএনএস ডেস্ক: আপনার অফিস যদি অন্যান্য অফিসের মতো জনাকীর্ণ ফাস্টফুড ও হরেক রকম হোটেলের ভিড়ে অবস্থিত হয় তাহলে আপনার জন্য স্বাস্থ্যবিধি মেনে চলা কিছুটা কঠিনই হবে। অফিস কর্মকর্তাদের সাধারণত সহজেই শরীর থেকে তিন হাজার ক্যালরি ব্যয় হয়। মহিলা কর্মকর্তাদের বেলায় এক হাজার ৪০০ ক্যালরি বেশি ব্যবহৃত হয়।

সকালের নাশতা
সকালে কাজে বের হওয়ার আগে একটি স্বাস্থ্যসম্মত নাশতা গ্রহণ করা উচিত। আপনি ক্যালরিযুক্ত খাবার গ্রহণ করবেন এবং চর্বিজাতীয় খাবার পরিহার করবেন। যদি এমন হয় সকালে আপনার খিদে লাগেনি, ফলে আপনি খেতে পারেননি, তাহলে অফিসে আপনি কলা, রুটি, ভাত, বার্লিজাতীয় খাবার নিয়ে আসতে পারেন- যখনই খিদে লাগবে আপনি খেতে পারেন। যদি এমন হয় যে, সকালে আপনি নাশতা করেই অফিসে এসেছেন তাহলে দুপুরের খাবারের আগে কোনো কিছু না খাওয়াই শ্রেয়। তবে এ সময় আপনি হাস্যোজ্জ্বল থাকবেন। যা আপনার মানসিক স্বাস্থ্য ভালো রাখবে। তবে যদি এমন হয় যে, আপনার প্রচণ্ড খিদে পাচ্ছে তাহলে মিটিংয়ের সময় আপনি হালকা নাশতা (বিস্কুট, পাউরুটি) খেতে পারেন।

দুপুরের খাবার
দুপুরের খাবার খেতে হবে আপনাকে, আপনার টেবিলের কাছ থেকে দূরে সরে। অর্থাৎ আপনি যদি খাবার সময়ও কাজ করেন, ই-মেইল পড়েন কিংবা কোনো রিপোর্ট দেখেন তাহলে আপনি আপনার খাবারের পরিপূর্ণ স্বাদ পরিপূর্ণভাবে উপভোগ করতে পারবেন না। বরং এমন মনে হতে পারে, খাবার শেষ হচ্ছে না কেন? তখনই আপনি খাবারের সন্তুষ্টি লাভ করতে পারবেন না বা আপনার পেটও ভরবে না।

আবার, দুপুরের অনেক খাবারের পরিবর্তে দুই-তৃতীয়াংশ খাবার গ্রহণ করতে পারেন। যা বিকেলে আপনার খিদে সৃষ্টি করবে, তখন আপনি ফলের এক অংশ, শুকনা খাবার (স্যান্ডউইচ) খেতে পারেন।

মিষ্টিজাতীয় খাবারে নিয়ন্ত্রণ
মিষ্টিজাতীয় খাবার হাতের নাগালের ভেতরে রাখবেন না। ইউনিভার্সিটি অব ইলিনয়েসের সাম্প্রতিক একটি জরিপে দেখা গেছে, যেসব কর্মচারী অফিসের ড্রয়ারে চকলেট কিংবা মিষ্টিজাতীয় খাবার রাখেন তারা দৈনিক ২.৯ শতাংশ বেশি মিষ্টি জাতীয় খাবার গ্রহণ করেন। আপনি চিনিমুক্ত চকলেট বা কম ক্যালরিযুক্ত চকলেটজাতীয় খাবার ড্রয়ারে রাখতে পারেন। আপনি ঘরে তৈরি সবজির কাটলেট আপনার সাথে রাখতে পারেন, যা স্বাস্থ্যের জন্য বিশেষ উপযোগী এবং স্বাস্থ্যসম্মত।

অফিসে ব্যায়াম
আপনি অফিসে স্বাস্থ্যসম্মত কিছু বিধি মেনে চলতে পারেন। এতে আপনার শরীরের অতিরিক্ত ক্যালরি ক্ষয় হতে পারে। যেমন ফোনে কথা কলার সময় আপনি হাঁটতে পারেন, দুপুরে খাবারের পর আপনি ১০ মিনিট হাঁটতে পারেন কিংবা কোনো ফাইল দেখা বা পড়ার সময়ও আপনি হাঁটতে পারেন।

অফিসের উৎসব
আপনাকে আপনার খাদ্য সীমিত করতে হবে। সহকর্মীর শিশুর জন্মদিনে গিয়ে আপনি এক টুকরো কেকের বেশি খাবেন না। রাতের অনুষ্ঠানের চেয়ে আপনি দুপুরের অনুষ্ঠানগুলোকে বেশি গুরুত্ব দেবেন। কেননা দুপুরের খাবারের পরে আপনার কিছু কাজ করার সময় থাকে যা আপনার খাবার হজমে সাহায্য করে। কিন্তু রাতের খাবারের পরেই ঘুম আপনার শরীরের মেদ বাড়াতে পারে। মনে রাখতে হবে, যেখানেই যান আপনাকে পর্যাপ্ত পরিমাণ বিশুদ্ধ পানি গ্রহণ করতে হবে।

সারা দিন অফিসের চেয়ারে বসে থাকা
প্রতি ৯০ মিনিট পর পর হাঁটার ফলে শরীরে ক্যালরি খরচ হয়। বন্ধুকেই খেলনা করে সরাসরি হেঁটে গিয়ে আপনি তার সাথে দেখা করতে পারেন। সহকর্মীর সাথে কুশল বিনিময়ের জন্য আপনি নিজে তার কাছে যেতে পারেন। দুপুরের খাবারের পর আপনি কুশল বিনিময়ের অংশ হিসেবে সহকর্মীদের নিয়ে হাঁটতে পারেন। পিয়ন দিয়ে অন্য ফাইল বা কাজ করিয়ে এ রুম থেকে ও রুমে হেঁটে গিয়েও আপনি কাজটি করতে পারেন, যা শরীরের পক্ষে ভালো।

পিএনএস/আনোয়ার

 

@PNSNews24.com

আপনার মন্তব্য প্রকাশ করুন
Developed by Diligent InfoTech