১০ হাজার ব্যাঙের মৃত্যু

  


পিএনএস ডেস্ক : পেরুর দক্ষিণাঞ্চলে কোয়াটা নদীতে সম্প্রতি প্রায় ১০ হাজার 'টিটিকাকা' ব্যাঙ মরে ভেসে উঠেছে। একসাথে এত অধিক সংখ্যক বিপন্ন প্রজাতির ব্যাঙ মরে যাওয়ার ঘটনায় তদন্ত শুরু করছে দেশটির একটি পরিবেশবাদী সংস্থা। কর্তৃপক্ষ সোমবার এ খবর জানিয়েছে।

ন্যাশনাল ফরেস্ট্রি অ্যান্ড ওয়াইল্ডলাইফ সার্ভিস (সেফর) নামক ওই সংস্থাটি স্থানীয়দের বরাত দিয়ে এক বিবৃতিতে জানায়, নদীর ৫০ কিলোমিটার এলাকাজুড়ে ১০ হাজারেরও বেশি ব্যাঙ আক্রান্ত হয়ে মরে ভেসে উঠেছে। তারা এ এ ঘটনার জন্য কোয়াটা নদীর দূষণকে দায়ী করেছে।

গোষ্ঠীটি দাবি করেছে, ওই অঞ্চলে নর্দমার পানি শোধণের জন্য প্ল্যান্ট স্থাপনের আবেদন উপেক্ষা করেছে সরকার।

নদীর তীরে মৃত টিটিকাকা ব্যাঙ ভেসে এসেছে...

টিটিকাকা নামের পানিতে বসবাসকারী এই ব্যাঙের প্রজাতিটি হুমকির মুখে রয়েছে। এই প্রজাতির ব্যাঙগুলোকে শুধু পেরু ও বলিভিয়ার দূষণহীন পানির লেকগুলো এবং শাখানদীতে পাওয়া যায়।

কোয়াটা নদীতে দূষণরোধে গঠিত কমিটি জানিয়েছে, পেরুর সরকার গুরুতর দূষণ সমস্যার সুরাহা করতে ব্যর্থ হয়েছে।

পরিবেশবাদী আন্দোলনকারীরা ১০০টি মৃত ব্যাঙ আঞ্চলিক রাজধানী পুনোর সেন্ট্রাল স্কয়ারে নিয়ে যায়।

আন্দোলনকারীদের নেতা মারুজা ইনকুইলা বলেন, “আমরা মৃত ব্যঙগুলো নিয়ে এসেছি। আমরা কীভাবে বেঁচে আছি কর্তৃপক্ষ তা বুঝতে পারে না।”

তিনি আরো বলেন, “সমস্যাটি কত গুরুতর এই ব্যাপারে তাদের কোনো ধারণাই নেই। পরিস্থিতি খুবই ভয়ানক।”

পিএনএস/হাফিজুল ইসলাম

 

@PNSNews24.com

আপনার মন্তব্য প্রকাশ করুন
Developed by Diligent InfoTech