‘ট্রাম্প যুবতীদের উপভোগের সামগ্রী মনে করেন’

  



পিএনএস: সুন্দরী প্রতিযোগিতার আগে ডনাল্ড ট্রাম্প ব্যক্তিগতভাবে প্রতিজন যুবতীকে নিজে পরখ করেন। তিনি এসব যুবতীকে মনে করেন শুধু একটি মাংসের দলা ও যৌন উপভোগের সামগ্রী। ডনাল্ড ট্রাম্পের বিরুদ্ধে এমন অভিযোগ করেছেন ২০০৬ সালের মিস নর্থ ক্যারোলাইনা সামান্থা হোলভে। সিএনএন টেলিভিশনকে দেয়া এক সাক্ষাৎকারে তিনি আরো বিস্তারিত বলেছেন এসব নিয়ে। সামান্থা বলেছেন, ডনাল্ড ট্রাম্প নারীদের সঙ্গে যে আচরণ করেন তা আমার পুরো জীবনে দেখা সবচেয়ে নোংরা বিষয়। প্রতিযোগিতার আগে তিনি প্রতিটি প্রতিযোগী সুন্দরীর সামনে চলে যান। তার পা থেকে মাথা পর্যন্ত পরখ করে নেন, যেন তারা মাংসের দলা ও যৌন উপভোগের সামগ্রী। ২০০৬ সালে এ প্রতিযোগিতার সময় গর্জিয়াস সুন্দরী সামান্থার বয়স ছিল ২০ বছর। তিনি ট্রাম্পের ওই আচরণকে অসংযত বলে মনে করেন। এ বিষয়ে তিনি নিজের মায়ের সঙ্গে শেয়ার করেছেন। এসব ঘটার পর নিজেকে বিজয়ী ভাবার কোনো খায়েশ তার ছিল না। তবু তিনি জিতে গেছেন। সামান্থা বলেন, বারে যেমন নারী লোভী পুরুষ সুন্দরী বেছে নেয় ঠিক তেমন ছিল ঘটনাটি। সামান্থা হোলভে’র বসবাস নর্থ ক্যারোলাইনার বুয়েস ক্রিকের হার্নেট কাউন্টি সম্প্রদায়ে। তিনি বলেছেন, প্রতিযোগিতায় কে জিতবে তা নির্ভর করতো ডনাল্ড ট্রাম্প ও তার স্ত্রী মেলানিয়া ট্রাম্পের ওপর। তারা প্রতিযোগিতার ব্যাকস্টেজে চলে যেতেন। ট্রাম্প তখন প্রতিযোগী মেয়েদের দিকে তাকিয়ে থাকতেন। মনে হতো তিনি এসব মেয়েকে মানুষ হিসেবে মনে করেন না। তারা দুজন মেয়েদের ড্রেসিং রুম পর্যন্ত চলে যেতেন, যেখানে প্রতিযোগীরা প্রস্তুতি নেন। এমন অভিযোগ শুধু সামান্থার একার নয়। আরো বেশকিছু মিস ইউএসএ এমন অভিযোগ করেছেন।



পিএনএস/বাকিবিল্লাহ্


 

@PNSNews24.com

আপনার মন্তব্য প্রকাশ করুন
Developed by Diligent InfoTech