ভারতের বাজারে এখন ২০০০-এর নকল নোট

  

পিএনএস ডেস্ক:এই সময় ডিজিটাল ডেস্ক: পাঞ্জাবের তরনতারন এবং কর্নাটকের চিক্কমাগালুরু-র পর এ বার কেরালা-র ত্রিচুর। নতুন ২০০০ টাকার নোটের প্রিন্ট-আউট বার করে দুই দোকানিকে ঘোল খাওয়ালো ১৩ বছরের নাবালিকা। তবে শেষ পর্যন্ত ধরা পড়ে যাওয়ায় আপাতত তার ঠিকানা পুলিশ লক-আপ।

কালার প্রিন্টারের সাহায্যে নতুন ২০০০ টাকার নোট ছাপায়া মেয়েটি। প্রথমে নোটের দুই দিকের স্ক্যান কপি করে। পরে তা কালার প্রিন্টারের সাহায্যে ছাপায় সে। সদ্য বাজারে আসা ২০০০ টাকার নোট সম্পর্কে এখনও তেমনভাবে কেউ সচেতন হননি। এই সুযোগকে কাজে লাগাতে চেয়েছিল মেয়েটি। প্রথমে একটি স্টেশনারি দোকানে গিয়ে ৫০০ টাকার জিনিসপত্র কেনে সে। দোকানদারকে নকল নোট দিলে তিনি ১৫০০ টাকা ফেরত দেন মেয়েটিকে।

এক দিন পরে অন্য একটি দোকানে গিয়ে ৮০০ টাকার পোশাক কেনে। সেখানে আরও একটি নকল নোট দেয় দোকানদারকে। দোকানে ১২০০ টাকা খুচরো না থাকায় তিনি পাশের দোকানে টাকাটি ভাঙাতে যান। সেখানে নোটটি দেখে সন্দেহ হয় দোকানির। পরীক্ষা করে তিনি বুঝতে পারেন এটি নকল। তত্ক্ষ ণাত্‍ তিনি পুলিশে ফোন করেন। নিকটবর্তী থানা থেকে পুলিশ দ্রুত এসে নোট পরীক্ষা করে বুঝতে পারে সেটি নকল। তার পর গিয়ে মেয়েটিকে জিজ্ঞাসাবাদ শুরু করে। প্রথমে সে দোষ ঝেড়ে ফেলতে একজন সাইবার ক্যাফের মালিকের নাম করে। তবে সে ব্যক্তিকে জেরা করে বোঝা যায় মেয়েটি মিথ্যে বলছে। পরে জেরার মুখে সব স্বীকার করে মেয়েটি।

এর আগেও কর্নাটকের চিক্কমাগালুরু-তে এক ব্যক্তি নোটের রঙিন ফটোকপি করে বাজারে চালাতে চেয়েছিল। এক পেঁয়াজ ব্যবসায়ীকে নোটটি গছিয়ে পালিয়ে যায় সে। পরে পাঞ্জাবের তরনতারনেও সন্দীপ কুমার এবং হরজিন্দর সিং নামে দুই ব্যক্তি গ্রেপ্তার হয় এই একই কারণে। ক’ দিনের মধ্যে তৃতীয় ঘটনা ঘটল কেরালায়। প্রতি ক্ষেত্রে যদিও অপরাধী ধরা পড়েছে।


পিএনএস/আলআমীন

 

@PNSNews24.com

আপনার মন্তব্য প্রকাশ করুন
Developed by Diligent InfoTech