মরক্কোয় বোরকা নিষিদ্ধ

  


পিএনএস: আফ্রিকার মুসলিম দেশ বলে পরিচিত মরক্কোয় বোরকা নিষিদ্ধ করা হয়েছে। স্থানীয় সূত্রের বরাত দিয়ে বিবিসি জানায়, এখন থেকে দেশটিতে বোরকার উৎপাদন, আমদানি ও বিক্রি নিষিদ্ধ হিসেবে বিবেচিত হবে।

বিবিসির প্রতিবেদনে বলা হয়, মরক্কোতে সরকারিভাবে এখনো সরাসরি এ বিষয়ে নিষেধাজ্ঞা জারি করা না হলেও, দেশটির স্বরাষ্ট্রমন্ত্রণালয়ের উদ্যোগে চলতি সপ্তাহ থেকেই এ নিষেধাজ্ঞা কার্যকর করা হবে। দেশটির স্বরাষ্ট্র মন্ত্রণালয়ের এক উচ্চপদস্থ কর্মকর্তা এলই৩৬০ নিউজ সাইটকে বোরকা নিষিদ্ধের বিষয়টি মঙ্গলবার নিশ্চিত করেছেন।

এই নিষেধাজ্ঞার কথা জানিয়ে সোমবার ব্যবসায়ীদের কাছে চিঠিও পাঠানো হয়েছে। এতে বলা হয়, নির্দেশনা বাস্তবায়নে প্রতিষ্ঠানগুলো ৪৮ ঘণ্টা সময় পাবে।
দেশটির স্বরাষ্ট্র মন্ত্রণালয়ের এক উচ্চপদস্থ কর্মকর্তা এলই৩৬০ নিউজ সাইটকে বোরকা নিষিদ্ধের বিষয়টি নিশ্চিত করেছেন। তিনি দাবি করেন ‘ডাকাতরা এই পোশাকটি ব্যবহার করে বারবার তাদের উদ্দেশ্য সাধন করছে’।
‘যদিও বোরকা মরক্কোয় বহুল ব্যবহৃত পোশাক নয়। বেশিরভাগ নারীই আব্রু রক্ষায় হিজাব ব্যবহার করে থাকেন। আবার দেশটির উত্তরাঞ্চলের রক্ষণশীল এলাকাগুলোর সালাফি গোষ্ঠীর নারীরা নেকাব ব্যবহার করে থাকেন।’

অপরদিকে দেশটির সাবেক পরিবার ও সমাজ উন্নয়ন মন্ত্রী নৌঝা স্কাল্লি এই সিদ্ধান্তকে ‘ধর্মীয় উগ্রবাদের বিরুদ্ধে লড়াইয়ে একটি গুরুত্বপূর্ণ পদক্ষেপ’ অভিহিত করে একে স্বাগত জানিয়েছেন।
এদিকে মরক্কোর বাদশা ষষ্ঠ মোহাম্মদ ইসলামের মধ্যপন্থি ধারার পক্ষপাতী। কিন্তু সরকারের এই সিদ্ধান্ত দেশজুড়ে বিতর্ক সৃষ্টি করেছে।

নর্দান মরোক্কান ন্যাশনাল অবজারভেটরি ফর হিউম্যান ডেভেলপমেন্ট অবশ্য বলছে, সরকারের এই সিদ্ধান্ত ‘অযৌক্তিক ও খেয়ালিপূর্ণ’।

পিএনএস/বাকিবিল্লাহ্

 

@PNSNews24.com

আপনার মন্তব্য প্রকাশ করুন
Developed by Diligent InfoTech