টয়লেটে পড়ে যাওয়া ফোনসেটের জন্য ৩ জনের মৃত্যু

  

পিএনএস ডেস্ক : টয়লেটের প্যানে মোবাইল ফোনসেট পড়ে যাওয়ার পর তা উদ্ধার করতে গিয়ে দুই শ্রমিকের মৃত্যু হয়। এরপর দুজনের মরদেহ উদ্ধারের পর অ্যাম্বুলেন্সে করে হাসপাতালে নিয়ে যাওয়ার পথে একজন ডাক্তারের মৃত্যু হয়েছে বলে রাশিয়া টুডে (আরটি) খবর দিয়েছে।

সোমবার উজবেকিস্তানে এই মর্মান্তিক ঘটনা দুটি ঘটেছে। জানা গেছে, টয়লেটের প্যানে একটি মোবাইল ফোনসেট পড়ে যায়। এরপর সেটি উদ্ধার করতে সেপটিক ট্যাংকে দুজন নামেন। এসময় অক্সিজেনের স্বল্পতার কারণে তাদের মৃত্যু হয়। পরে একই কারণে অ্যাম্বুলেন্সে একজন ডাক্তারের মৃত্যু হয়েছে।

ঘটনাটি পূর্ব উজবেকিস্তানের ইয়াংকিকুরগন জেলার একটি গ্রামে ঘটেছে। এবিষয়ে উজবেকিস্তানের জরুরি বিষয়ক মন্ত্রণালয় জানায়, স্থানীয় একজন নারী তার ফোনটি টয়লেটের প্যানে ফেলে দেন। পরে দুজন ব্যক্তিকে অর্থের বিনিময়ে ফোনটি তুলে দেওয়ার জন্য ঠিক করেন। এরপর তারা ফোনটি উদ্ধারের জন্য সেপটিক ট্যাংকে নামেন। পরে তারা আর সেপটিক ট্যাংকের বাইরে আসেননি।

এঘটনার পর ওই নারী স্থানীয় একটি হাসপাতালে ফোন করে অ্যাম্বুলেন্সের কথা বলেন। অ্যাম্বুলেন্সের সঙ্গে একজন ডাক্তারও আসেন। সেপটিক ট্যাংক থেকে দুজনের মৃতদেহ উদ্ধার করে অ্যাম্বুলেন্সে করে হাসপাতালে নেওয়ার পথে ওই ডাক্তারও মারা যান।

এবিষয়ে মন্ত্রণালয়ের বিবৃতিতে বলা হয়, অক্সিজেনের অভাবে তারা শ্বাসকষ্টে ভোগেন এবং বিষাক্ত গ্যাসের কারণে তাদের মৃত্যু হয়।

এর আগে ২০১৪ সালে চীনে সেপটিক ট্যাংক থেকে ফোনসেট উদ্ধার করতে গিয়ে দুজনের মৃত্যু ঘটে এবং তিনজন অসুস্থ হয়ে পড়েন। তখনও একটি ফোনসেট টয়লেটের প্যানে পড়ে গেলে তা উদ্ধার করতে তারা সেপটিক ট্যাংকে নেমে পড়েন। এসময় অক্সিজেনের অভাব ঘটলে তাদের মৃত্যু হয়। ওই ফোনসেটের দাম ছিল তিনশ ২০ ডলার।

পিএনএস/মোঃ শ্যামল ইসলাম রাসেল


 

@PNSNews24.com

আপনার মন্তব্য প্রকাশ করুন
Developed by Diligent InfoTech