এখনো খাওয়া যাবে ১০৬ বছরের পুরনো ফ্রুটকেক!

  


পিএনএস ডেস্ক: বরফে ঢাকা এন্টার্কটিকায় হয়তো বিশ্বের সবচেয়ে বিরূপ প্রাকৃতিক পরিবেশ। কিন্তু ব্রিটিশ এক প্যাকেট ফ্রুটকেক ১০০ বছরেরও বেশি সময় ধরে তা এখনো তরতাজা রয়েছে।

এন্টার্কটিক হেরিটেজ ট্রাস্টের গবেষকরা বলছেন কেপ এডেয়ার নামে একটি জায়গায় তারা ব্রিটেনের তৈরি ১০৬ বছরের পুরনো একটি ফ্রুটকেক খুঁজে পেয়েছেন। ধারণা করা হচ্ছে বিখ্যাত ব্রিটিশ অভিযাত্রিক রবার্ট ফ্যালকন স্কট এই কেক নিয়ে এন্টার্কটিকাতে গিয়েছিলেন। খবর বিবিসির।

কেকের টিনে জং ধরে গিয়েছে, কিন্তু কেকটি যথেষ্ট ভালো আছে। তাতে কেকের সুগন্ধও অবশিষ্ট রয়েছে। কেকটি পাওয়া গেছে এন্টার্কটিকার সবচেয়ে পুরনো স্থাপনাটির ভেতরে। ১৮৯৯ সালে নরওয়ের একটি অভিযাত্রী দল এই কুড়ে ঘরটি তৈরি করেছিলো।

১৯১১ সালে তার টেরা নোভা অভিযানের সময় ক্যাপ্টেন স্কট এই ঘরটি ব্যবহার করেছিলেন।

নিউজিল্যান্ড ভিত্তিক এন্টার্কটিক হেরিটেজ ট্রাস্টের লিযি মিক ন্যাশনাল জিওগ্রাফিক পত্রিকাকে বলেন - হান্টলে এ্যান্ড পামারস নামে ব্রিটিশ বিস্কিট কোম্পানির তৈরি এই ফ্রুটকেক স্কটের খুব প্রিয় ছিল।

‘এন্টার্কটিকায় থাকতে ও কাজ করার সময় চর্বিযুক্ত, মিষ্টি খাবারের প্রতি মানুষের আসক্তি হয়। ফলে সেখানে চা-কফির সাথে ফ্রুটকেক একদম আদর্শ খাবার।’

২০১৬ সালের মে মাস থেকে নরওয়েজিয়ানদের তৈরি এন্টার্কটিকার ঐ কুঁড়েঘরে ঐতিহাসিক নিদর্শন খুঁজছে হেরিটেজ ট্রাস্ট। পোশাকসহ দেড় হাজারের মত নানা জিনিস পেয়েছেন তারা ঐ ঘরে। এমনকী মাছ-মাংসও পেয়েছেন। জ্যাম পেয়েছেন।

তবে প্রায় তাজা অবস্থায় পাওয়া কেকের টুকরাটি গবেষকদের সবচেয়ে চমৎকৃত করেছে। তার নিয়ে যাওয়া কেকটি এতদিন থেকে গেলেও ক্যাপ্টেন স্কট এবং তার দলের সদস্যদের ঐ অভিযানে মৃত্যু হয়েছিল।

পিএনএস/হাফিজুল ইসলাম

 

@PNSNews24.com

আপনার মন্তব্য প্রকাশ করুন
Developed by Diligent InfoTech