সীমান্তে মিসাইল ভর্তি চালকবিহীন হেলিকপ্টার ওড়াবে চীন!

  


পিএনএস ডেস্ক: প্রথম চালকবিহীন অ্যাটাক হেলিকপ্টার প্রকাশ্যে আনল চীন। এই হেলিকপ্টার ১২০ কেজি অস্ত্র বহনে সক্ষম বলে জানা গিয়েছে। চীনের তিয়ানজিনে সেদেশের সবথেকে বড় মিলিটারি শোতে ওই AV500W হেলিকপ্টারের প্রদর্শনী হয়।

৭.২ মিটার লম্বা এই এয়ারক্রাফট তৈরি করেছে চীনের জিংডেজেন প্রদেশের AVIC হেলিকপ্টার রিসার্চ অ্যান্ড ডেভেলপমেন্ট ইনস্টিটিউট। সর্বোচ্চ মোট ৪৫০ কেজি ওজন বহনে সক্ষম এই হেলিকপ্টার। এর সর্বোচ্চ গতি ১৭০ কিলোমিটার প্রতি ঘণ্টা। মোট ১২০ কেজি অস্ত্র বহন করতে হবে এটি। এর সাধারণ মডেলটি আট ঘণ্টা ও কমব্যাট ভার্সানটি আকাশে চার ঘণ্টা উড়তে সক্ষম।

এই হেলিকপ্টারের চিফ ডিজাইনার জিয়াং তাইয়ু জানিয়েছেন, গত অগাস্টে পরীক্ষামূলকভাবে ওড়ার সময়ই অস্ত্র নিক্ষেপে সক্ষম ছিল।

এটি যে কোনও জায়গা থেকে উড়তে সক্ষম। এমনকি কোনও খাদ থেকে আকাশে উড়তে পারে এই চালকবিহীন হেলিকপ্টার।

প্রবল ঠাণ্ডাতেই এটি সমানভাবে কাজ করবে। বিশেষত সীমান্তে নজরদারি চালাতে এত জুড়ি মেলা ভার। এমনটাই জানিয়েছেন নির্মাণকারী সংস্থার কর্তারা।

চলতি বছরের এর সবক’টি পরীক্ষা সম্পূর্ণ হবে বলে জানিয়েছেন জিয়াং। অনেক দেশই এই হেলিকপ্টার কিনতে আগ্রহ প্রকাশ করেছে বলে জানা গিয়েছে। একমাত্র আমেরিকা ও ইজরায়েলের হাতে আছে এই ধরনের হেলিকপ্টার।

সাধারণত এই হেলিকপ্টার আকাশ থেকে মাটিতে আঘাত করার অস্ত্রই বহন করবে। এতে থাকা প্রত্যেকটি মিসাইলের ওজন হবে আট কেজি আর তা পাঁচ কিলোমিটার দূরের টার্গেটে আঘাত করতে থাকবে। এটি বোমা ও মেশিন গানও বহন করতে পারবে।

চীনের ওই হেলিকপ্টার এক্সপোতে অংশ নিচ্ছে রাশিয়া, আমেরিকা, ফ্রান্স। মোট ৯৮টি হেলিকপ্টার আনা হয়েছে এই প্রদর্শনীতে। সূত্রঃ কলকাতা ২৪

পিএনএস/আনোয়ার

 

@PNSNews24.com

আপনার মন্তব্য প্রকাশ করুন
Developed by Diligent InfoTech