রোহিঙ্গা ইস্যুতে রাষ্ট্রসংঘের আবেদনে মমতার সমর্থন

  


পিএনএস ডেস্ক: মায়ানামারের রাখাইন প্রদেশ থেকে নির্যাতনের শিকার হয়ে বাংলাদেশে আশ্রয় নেওয়া রোহিঙ্গাদের পাশে দাঁড়ানোর জন্য রাষ্ট্রসংঘ যে আবেদন জানিয়েছে তাকে সমর্থন জানিয়েছেন পশ্চিমবঙ্গের মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়। এর আগে পশ্চিমবঙ্গ সরকার রাজ্যে থাকা রোহিঙ্গাদের বিতাড়িত করা হবে না বলে সিদ্ধান্তের কথা জানালেও তৃণমূল কংগ্রেস নেত্রী এতদিন একরকম চুপ করেই ছিলেন। একমাত্র তাঁর মন্ত্রিসভার সদস্য জামায়েত উলেমা হিন্দের প্রধান সিদ্দিকুল্লা চৌধুরিই অন্যান্য মুসলিম সংগঠনের পাশাপাশি সরব হয়েছেন। গত শুক্রবার টুইটারে মমতা রোহিঙ্গা শরণার্থীদের ব্যাপারে উদ্বেগও প্রকাশ করেছেন ।

সেইসঙ্গে তিনি বলেছেন, আমি বিশ্বাস করি সাধারণ সব রোহিঙ্গাই সন্ত্রাসী নয়। সম্প্রতি রাষ্ট্রসংঘ রাজনৈতিক মতপার্থক্য সরিয়ে রেখে বিপন্ন রোহিঙ্গা শরর্ণাথীদের দিকে সাহায্যের হাত বাড়িয়ে দিতে আবেদন জানানোর পাশাপাশি তাদের জন্য চলতি মানবিক সহায়তা কর্মসূচি সমর্থনের ডাক দিয়েছে। এদিকে ভারতের পররাষ্ট্র মন্ত্রী রোহিঙ্গা ইস্যুতে ভারত মায়ানমারকে চাপ দিয়ে যাচ্ছে বলে জানালেও স্বরাষ্ট্র মন্ত্রী রাজনাথ সিং রোহিঙ্গা মুসলিমদের ভারত থেকে বিতাড়নের ব্যাপারে কেন্দ্রের পরিকল্পনা সম্পর্কে সোমবার সুপ্রিম কোর্টে হলফনামা পেশ করা হবে বলে জানিয়েছেন। রোহিঙ্গাদের ভারত থেকে মায়ানমারে ফেরত পাঠানোর বিরুদ্ধে পেশ হওয়া আবেদনের পরিপ্রেক্ষিতে কেন্দ্রীয় সরকারকে হলফনামা পেশ করতে বলেছে শীর্ষ আদালত।

কেন্দ্রীয় স্বরাষ্ট্রমন্ত্রক গত জুলাইয়ে সব রাজ্য সরকারকে রোহিঙ্গা শরণার্থীদের চিহ্নিত করে বের করে দিতে বলেছে। কংগ্রেসর পক্ষ থেকে জাতীয় স্বার্থ বিবেচনা করেই সব দলকে আলোচনায় ডেকে সরকার রোহিঙ্গা নিয়ে একটি নীতি ঠিক করার কথা বলা হয়েছে। কংগ্রেস মুখপাত্র অজয় মাকেন রোহিঙ্গা সমস্যার সুদূরপ্রসারী প্রতিক্রিয়া হতে পারে বলে অভিমত জানিয়ে দাবি করেন, ইস্যুটি খুব সিরিয়াস। সরকারের এ নিয়ে একটি স্পষ্ট নীতি থাকা চাই।

পিএনএস/আনোয়ার

 

@PNSNews24.com

আপনার মন্তব্য প্রকাশ করুন
Developed by Diligent InfoTech