রোহিঙ্গাদের ত্রাণবহর ঠেকাতে পেট্রলবোমা!

  

পিএনএস ডেস্ক : মিয়ানমারে রাখাইন রাজ্যে রোহিঙ্গাদের জন্য ত্রাণ সরবরাহ ঠেকাতে পেট্রলবোমা নিক্ষেপ করা হয়েছে। পরে পুলিশ ফাঁকা গুলি ছুড়ে পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণে আনে। আন্তর্জাতিক রেডক্রস ওই ত্রাণ নিয়ে রাখাইন রাজ্যে যাচ্ছিল।

বার্তা সংস্থা রয়টার্সের খবরে বলা হয়, গতকাল বুধবার রাতে রাখাইনের রাজধানী সিতেতে রেডক্রসের কর্মীরা বিভিন্ন ত্রাণসামগ্রী নৌকায় তুলছিলেন। এই ত্রাণসামগ্রী রাখাইন রাজ্যে রোহিঙ্গাদের জন্য নিয়ে যাওয়ার প্রস্তুতি চলছিল। এ সময় রোহিঙ্গাবিরোধী শত শত বিক্ষোভকারী সেখানে হাজির হয়ে ত্রাণকর্মীদের বাধা দেওয়ার চেষ্টা করেন। তাঁদের কারও কারও হাতে লাঠি ও রড ছিল। একপর্যায়ে পেট্রলবোমাও নিক্ষেপ করেন বিক্ষোভকারীরা।

প্রত্যক্ষদর্শী ও মিয়ানমারের সরকারি দপ্তর থেকে জানানো হয়, খবর পেয়ে অন্তত ২০০ পুলিশ সদস্য ঘটনাস্থলে হাজির হন। পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণে আনতে তাঁরা ফাঁকা গুলি ছোড়েন। বিক্ষোভকারীদের ছত্রভঙ্গ করে দেওয়ার সময় অন্তত আটজন আহত হন।

রেডক্রসের একজন মুখপাত্র ঘটনার সত্যতা নিশ্চিত করে বলেন, এ ঘটনায় ত্রাণকর্মী কেউ আহত হননি।

গত ২৫ আগস্ট রাখাইনে পুলিশ ও সেনাবাহিনীর বেশ কয়েকটি চৌকিতে হামলা হয়। এর জের ধরে সেখানে সহিংস অভিযান শুরু করে মিয়ানমারের সেনা ও পুলিশ। গুলি-আগুনে নিহত হয় অন্তত এক হাজার রোহিঙ্গা। অভিযানের মুখে প্রাণভয়ে সোয়া চার লাখ রোহিঙ্গা পালিয়ে বাংলাদেশে এসেছে। রাখাইনে কিছু রোহিঙ্গা এখনো থাকলেও তারা খাদ্যসংকটে পড়েছে। প্রাণভয়ে বাইরে বের হচ্ছে না। এই পরিস্থিতিতে সেখানে ত্রাণ সরবরাহের উদ্যোগ নেয় রেডক্রস।

পিএনএস/জে এ /মোহন

 

@PNSNews24.com

আপনার মন্তব্য প্রকাশ করুন
Developed by Diligent InfoTech