ভারতে স্বামীর ‘জীবন বাঁচাতে’ বাসররাতে নববধূকে তান্ত্রিক ও দেবরের ধর্ষণ!

  



পিএনএস ডেস্ক: স্বামীর জীবনের ‘ঝুঁকি’ দূর করতে তান্ত্রিকের কথা অনুযায়ী বিয়ের রাতেই ধর্ষণ করা হলো নববিবাহিতাকে। ভয়ঙ্কর এই ঘটনাটি ঘটেছে ভারতের উত্তরপ্রদেশের মেরঠে।

ধর্ষিতা নববধূ ও তার পরিবারের লোকজনের অভিযোগের ভিত্তিতে দেবর ও তান্ত্রিকের বিরুদ্ধে ধর্ষণের অভিযোগ দায়ের করা হয়েছে বলে জানিয়েছেন পুলিশ সুপার (শহর) মান সিংহ চৌহান। তিনি আরও বলেছেন, এফআইআর-এ স্বামী ও দেবরের বিরুদ্ধে ধর্ষণের চক্রান্ত করার অভিযোগ করেছেন ওই মহিলা।

পুলিশ সূত্রে খবর, ওই মহিলা মেরঠের লিসারি গেট থানা এলাকার বাসিন্দা। এ মাসের ১৫ তারিখ হাপুর জেলার পিলাখওয়া অঞ্চলের এক কাপড়ের ব্যবসায়ীর সঙ্গে তার বিয়ে হয়। ওই মহিলার অভিযোগ, বিয়ের অনুষ্ঠান শেষ হওয়ার পরেই তাকে মাদক মিশ্রিত পানীয় দেওয়া হয়। সেই পানীয় খেয়ে তিনি আংশিক সংজ্ঞাহীন হয়ে পড়েন। এরপর তার স্বামীর বদলে এক অপরিচিত ব্যক্তিকে (তান্ত্রিক) নিয়ে ঘরে ঢোকে দেবর। তারা দু’জন মিলে তাকে ধর্ষণ করে।

পরে যখন ওই মহিলা স্বামী ও তার পরিবারের লোকজনকে এই ঘটনার কথা বলেন, তখন তারা বলে, তান্ত্রিক বলেছিল, ওই মহিলার সঙ্গে বিয়ের প্রথম রাত কাটালে স্বামীর মৃত্যু হবে। এই ঝুঁকি দূর করার জন্যই ধর্ষণ করা জরুরি ছিল। এবার তারা বাড়ির নিচে পুঁতে রাখা গুপ্তধনের সন্ধান করবে।

শ্বশুরবাড়িতে এই অত্যাচারের শিকার হওয়ার পর বাপের বাড়িতে ফিরে আসেন ওই মহিলা। তিনি বাবা-মাকে গোটা ঘটনা জানান। এক সপ্তাহ পরে পুলিশে অভিযোগ দায়ের করা হয়।

পিএনএস/আনোয়ার

 

@PNSNews24.com

আপনার মন্তব্য প্রকাশ করুন
Developed by Diligent InfoTech