যেকোনো স্থানে পরমাণু হামলায় চীনের হাইপারসনিক বিমান প্রস্তুত!

  

পিএনএস ডেস্ক: সেকেন্ডে ১২ কিলোমিটার বেগে উড়তে পারবে চীনের নির্মীয়মান হাইপারসনিক এয়ারক্র্যাফ্টটি। অর্থাৎ শব্দের ৩৫ গুণ বেগে। এই বেগে উড়লে চীন থেকে আমেরিকার উপকূলে পৌঁছতে মাত্র ১৪ মিনিট লাগবে।

মাত্র ১৪ মিনিটে চীনা যুদ্ধবিমান পৌঁছে যাবে মার্কিন উপকূলে, চালাতে পারবে পরমাণু হামলাও। শুধু আমেরিকায় নয়, খুব অল্প সময়েই যুদ্ধবিমানটি পারমাণু বোমা ফেলতে পারবে পৃথিবীর যেকোনো প্রান্তে। তেমনই এক হাইপারসনিক জেট তৈরি করছে চীন। খবর সাউথ চায়না মর্নিং পোস্ট সূত্রের। বছর তিনেকের মধ্যেই এই হাইপারসনিক জেট আকাশে উড়বে বলে হংকং ভিত্তিক সংবাদপত্রটির দাবি।

হাইপারসনিক জেটটি তৈরির কাজ চলছে বলে এক চীনা বিজ্ঞানীকে উদ্ধৃত করে জানিয়েছে সাউথ চায়না মর্নিং পোস্ট। জেটটিকে পরীক্ষা করা হবে একটি উইন্ড টানেলের মধ্যে। সেই বিশেষ উইন্ড টানেলও এখন নির্মীয়মান।

অত্যন্ত গোপনীয় উইন্ড টানেল প্রকল্পটিতে কাজ করছেন যে বিজ্ঞানীরা, তাদেরই এক জনকে উদ্ধৃত করেছে চীনা সংবাদপত্রটি। যে হাইপারসনিক জেট তৈরি হচ্ছে, সেটির পরীক্ষা শুধু নয়, আরো নানা ধরনের হাইপারসনিক অস্ত্রশস্ত্র এবং সরঞ্জাম তৈরির পরিকল্পনা নিয়েছে চীন। নির্মীয়মান উইন্ড টানেলটি সে সব পরীক্ষা-নিরীক্ষার কাজেও লাগবে বলে খবর। ২০২০ সালের মধ্যেই টানেলটি তৈরি হয়ে যাবে বলে চীনা বিজ্ঞানী ঝাও ওয়েই সাউথ চায়না মর্নিং পোস্টকে জানিয়েছেন। ২০২০ সালের মধ্যেই পরমাণু হামলায় সক্ষম হাপারসনিক জেটটি তৈরি হয়ে যাবে বলেও খবর।

এই প্রকল্প অবশ্য চীনের প্রথম হাইপারসনিক জেট প্রকল্প নয়। ডিএফ-জেএফ নামে একটি হাইপারসনিক জেট ২০১৩ সালেই তৈরি করে ফেলেছে চীন। এ পর্যন্ত অন্তত সাত বার তার পরীক্ষামূলক উড্ডয়নও সফল হয়েছে বলে ডেলি মেইল সূত্রের খবর। এই ডিএফ-জেডএফ শব্দের পাঁচ গুণ এবং ১০ গুণ বেগে উড়তে পারে। ডিএফ-জেডএফ ব্যবহার করেই পৃথিবীর যেকোনো প্রান্তে চীনের পক্ষে ক্ষেপণাস্ত্র হামলা চালানো বা পরমাণু বোমা ফেলা সম্ভব বলে চীনা বিজ্ঞানীদের দাবি। কিন্তু তার চেয়েও অনেক শক্তিশালী, দ্রুতগামী এবং প্রায় অপ্রতিরোধ্য জেট তৈরির পথে চীন অনেকটা এগিয়েছে বলে হংকংভিত্তিক সংবাদপত্রটি জানাচ্ছে।

পিএনএস/কামাল

 

@PNSNews24.com

আপনার মন্তব্য প্রকাশ করুন
Developed by Diligent InfoTech