স্ত্রীর পরকীয়ার স্বামীর বাধা অতপর স্বামীর ৮ টুকরা লাশ!

  


পিএনএস ডেস্ক: প্রতিবেশী এক যুবকের সঙ্গে ছিল পরকীয়া প্রেম। দিন সেই সম্পর্ক আরও ঘণীভূত হতে থাকে।

অন্যদিকে স্বামীর সঙ্গে বাড়তে থাকে ব্যবধান। এদিকে পরকীয়া প্রেমে বাধা হয়ে দাঁড়ান স্বামী। এজন্য পথের কাঁটা সরিয়ে দেওয়ার সিদ্ধান্ত নেয় স্ত্রী। পরিকল্পনা অনুযায়ী স্বামীকে নৃশংসভাবে কুপিয়ে খুন করে স্ত্রী। ঘটনাটি ঘটেছে ভারতের হরিয়ানার ঝাজ্জরের। সেই খুনের ঘটনায় বুধবার স্ত্রীকে ৩০ বছরের কারাদণ্ড দিয়েছেন আদালত।

আদালতে স্ত্রী স্বামীর করেছে, পথে কাঁটা সরাতে স্বামী বালজিতের দেহ কুপিয়ে ৮ টুকরা করে বিভিন্ন স্থানে লুকিয়ে রেখেছিল স্ত্রী পূজা। এই খুনের তদন্তে নেমে স্ত্রী পূজার সঙ্গে গ্রেফতার করা হয়েছিল আরও ৪ জনকে। তবে আদালত তার রায়ে জানিয়েছে, নৃশংস এই খুনের ঘটনায় একমাত্র আসামী স্ত্রীই।

ভারতীয় গণমাধ্যমের খবর, খুনের কয়েকদিনের মধ্যেই বালজিতদের বাড়িতে যায় তাঁর ভাই ও বোন। কিন্তু ভাইয়ের কোনো খোঁজ না পেয়ে তাদের মনে সন্দেহের দানা বাঁধে। সেই সঙ্গে ঘরের মধ্যে পঁচা গন্ধ পেলে তাদের সন্দেহ আরও জোরালো হয়। এরপরই তল্লাশিতে সামনে আসে এই নৃশংস খুনের ঘটনা।

পিএনএস/কামাল

 

@PNSNews24.com

আপনার মন্তব্য প্রকাশ করুন
Developed by Diligent InfoTech