ভারতে জুনিয়র সহকর্মীর মেয়েকে কর্নেলের ধর্ষণ

  

পিএনএস ডেস্ক: লেফটেন্যান্ট কর্নেলের মেয়েকে গণধর্ষণের অভিযোগে ভারতীয় সেনাবাহিনীর এক কর্নেলকে গ্রেফতার করা হয়েছে। সোমবার সিমলায় কর্নেলের সরকারি বাসভবনে ২১ বছরের ওই মেয়েকে ধর্ষণ করা হয় বলে অভিযোগ।

যদিও এফআইআর দায়ের করা হয় তার এক দিন পর। ধর্ষণের সময় অফিসারের বাড়িতে তার এক বন্ধুও ছিলেন বলে অভিযোগ। যদিও তাকে এখনো গ্রেফতার করা হয়নি। টাইমস অব ইন্ডিয়া জানিয়েছে, তাদের পক্ষ থেকে এ ব্যাপারে সেনাবাহিনীর প্রতিক্রিয়া নিতে কয়েকবার চেষ্টা করেছিল । তবে কোনো জবাব মেলেনি।

এফআইআরে যে দায়ের হয়েছে তা স্বীকার করে নিয়েছেন সিমলার পুলিশসুপার সৌম্য সাম্বাশিবন। ধর্ষিতার জবানবন্দি নেয়ার পর ও তার মেডিক্যাল পরীক্ষা-নীরিক্ষার পর দু জনের বিরুদ্ধে মামলা দায়ের করা হয়েছে।

ধর্ষিতা জানিয়েছেন, ধর্ষণের আগে ১৯ নভেম্বর সিমলা গেইটি থিয়েটারের একটি অনুষ্ঠানে তাকে এবং তার বাবাকে আমন্ত্রণ করেন অভিযুক্ত কর্নেল। সেখান থেকেই নৈশভোজে নিয়ে গিয়ে লেফটেন্যান্ট কর্নেলের মেয়েকে কর্নেল বলেন, তার মেয়ে মুম্বইয়ে মডেলিং পেশার সঙ্গে যুক্ত। পরদিন জুনিয়র অফিসারকে তিনি বলেন, মেয়ের ছবি পাঠানোর জন্য যাতে সেই ছবি তিনি নিজের মেয়েকে পাঠাতে পারেন। হোয়াটসঅ্যাপে ছবি পাঠানোর পর ধর্ষিতাকে কর্নেল বলেন, তার বাড়িতে যেতে। সেখানে মডেলিং পেশার সঙ্গে যুক্ত ব্যক্তিদের সঙ্গে দেখা করিয়ে দেয়ার প্রতিশ্রুতি দেন তিনি।

তার কথা শুনে তার বাড়িতে যেতেই মেয়েটিকে একটি ঘরে জোর করে ঢুকিয়ে, তাকে মদ্যপান করিয়ে কর্নেল ধর্ষণ করেন বলে অভিযোগ। কর্নেলের বন্ধু তাকে এই অপরাধে সাহায্য করেন বলে অভিযোগ। ধর্ষিতা জানিয়েছেন, তিনি এ কথা প্রকাশ করলে তার বাবার কেরিয়ার ধ্বংস করে দেয়া হবে বলে হুমকি দিয়েছিলেন অভিযুক্ত কর্নেল।

পিএনএস/কামাল

 

@PNSNews24.com

আপনার মন্তব্য প্রকাশ করুন
Developed by Diligent InfoTech