যৌনতা নিয়ে তরুণ-তরুণীরা যতটা উন্মাদ!

  

পিএনএস ডেস্ক:যৌনতা মানুষের জন্য প্রকৃতির নিয়ামত। এর সদ্ব্যবহার সমাজে যেমন শান্তি-শৃঙ্খলা বয়ে আনতে পারে, ঠিক উল্টোটিও ঘটতে পারে এর যথেচ্ছাচারে। যার অসংখ্য প্রমান আমরা পেয়েছি। তাইতো, ব্রিটিশ সরকার ব্যস্ত হয়ে পড়েছে তার নাগরিকদের যৌনচারে।

সম্প্রতি দেশটির সরকার সেক্সুয়াল ট্রান্সমিটেড ইনফেকশন নামের একটি প্রতিষ্ঠানকে দিয়ে তার নাগরিকদের যৌনতা নিয়ে একটি প্রতিবেদন করেছে। ওই প্রতিবেদনে উঠে এসেছে দেশটির পুরুষরা যৌনতা নিয়ে কতটা স্বেচ্ছাচারি!

দেখা গেছে, ব্রিটিশ নাগরিকদের প্রতি দশজনের মধ্যে একজন যৌনতার জন্য ব্যয় করে থাকেন কাড়ি কাড়ি টাকা। এই তালিকার অন্তর্ভুক্ত ১১ শতাংশ ব্রিটিশের মধ্যে অধিকাংশই সামাজিক ভাবে প্রতিষ্ঠিত।

ব্যাংকক বা আমস্টারডামের মতো এলাকাগুলিতে তারা বারবার ছুটে গিয়েছেন যৌন আকাঙ্ক্ষা পূরণ করার জন্য। উড়িয়েছেন লাখ লাখ টাকা।

সম্প্রতি ওই প্রতিবেদনে বলা হয়, যৌন চাহিদা পূরণে খোলায়খুশি মতো টাকা ব্যয় করার পাশাপাশি তরুণরা ডুব দেন মদের বোতলেও। বেপরোয়া ও উন্মত্ত জীবনে গা ভাসন তারা। তাৎপর্যপূর্ণভাবে একাকীত্ব ভোগ করা বয়স্কদের তুলনায় কর্মজীবনে প্রতিষ্ঠিত তরুণরাই এই জীবনের প্রতি বেশি আকৃষ্ট হন। যৌনতায় পিছনে সবচেয়ে বেশি অর্থ ব্যয় করে থাকেন তারাই।


ইউনিভার্সিটি কলেজ লন্ডনের একটি দল যৌন আচরণ ও জীবনযাপনের ওপর সমীক্ষা চালানোর পর এই তথ্যটি তুলে ধরেন। তাদের গবেষণায় দেখা গিয়েছে, ৯০-এর দশকের পর দম্পতিরা এখন অনেক কম সঙ্গমে লিপ্ত হন। যার জেরেই বাইরের দিকে মুখ ফেরাচ্ছে এক শ্রেণির তরুণ সমাজ।


পিএনএস/আলআমীন

 

@PNSNews24.com

আপনার মন্তব্য প্রকাশ করুন
Developed by Diligent InfoTech