১০০ কোটি টাকার বিছানা - আন্তর্জাতিক - Premier News Syndicate Limited (PNS)

১০০ কোটি টাকার বিছানা

  

পিএনএস ডেস্ক : ফুলশয্যার কথা কথা সবাই শুনেছেন, কিন্তু ‘অর্থশয্যার’ কথা কি শুনেছেন? প্রায় ১০০ কোটি রুপি যদি থরে থরে সাজিয়ে একটি বিছানা করা যায়! ভারতের উত্তর প্রদেশের কানপুরে একজন ভবন নির্মাতা ব্যবসায়ীর বাড়িতে গত মঙ্গলবার এমনই এক বিছানার সন্ধান মিলেছে। পুলিশ ও রিজার্ভ ব্যাংক অব ইন্ডিয়া (আরবিআই) কর্তৃপক্ষ ওই অর্থ উদ্ধার করেছে।

এনটিভির খবরে বলা হয়, উত্তর প্রদেশের পুলিশ দাবি করেছে, উদ্ধার হওয়া ওই নোটগুলো দিয়ে বিছানা তৈরি করা হয়েছিল। পরে সেগুলো উদ্ধার করে পাঁচটি বড় স্টিলের ট্রাঙ্ক, বস্তা ও কার্টনে ভরা হয়েছে। এগুলো সব ৫০০ ও ১০০০ রুপির নোট। ২০১৬ সালের নভেম্বরে এ নোট বাতিল করা হয়।

পুলিশ বলছে, ওই ব্যবসায়ীর নাম আনন্দ খাত্রি। আর ওই অর্থগুলো কয়েকজন ব্যক্তি ও প্রতিষ্ঠানের। অর্থ পাচারের অভিযোগ এড়াতেই হয়তো ওই ব্যবসায়ীকে যুক্ত করেন তাঁরা। উত্তর প্রদেশের দায়িত্বপ্রাপ্ত প্রধান পুলিশ কর্মকর্তা আনন্দ কুমার বলেছেন, ব্যবসার আড়ালে ওই ব্যবসায়ী এ ধরনের কার্যক্রমে যুক্ত হন। ওই নোটগুলো বদলে দেওয়ার কার্যক্রমে যুক্ত একজন মধ্যস্থতাকারীকেও আটক করা হয়েছে।

ভারতের জাতীয় তদন্ত সংস্থার বরাতে বলা হয়, ওই অর্থ চার বা পাঁচ ব্যক্তি বা প্রতিষ্ঠানের হতে পারে। এর মধ্যে একজন ডিটারজেন্ট নির্মাতাও আছেন। একটি হোটেল থেকে কয়েকজনকে গ্রেপ্তার করে তাঁদের কাছ থেকে পাওয়া তথ্যে ওই অভিযান চালানো হয়। এ ঘটনায় সব মিলিয়ে ১৬ জনকে গ্রেপ্তার করা হয়েছে।

উল্লেখ্য, ২০১৬ সালের নভেম্বরে পূর্ব ঘোষণা ছাড়াই ৫০০ আর ১০০০ রুপির নোট বাতিল ঘোষণা করে বিজেপি সরকার। তখন দেশটির প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদি দাবি করেছিলেন, অর্থনীতিতে তিন লাখ কোটি রুপির জাল ও কালো রুপি ঘুরছে। এসব রুপি অচল করে দেওয়ার প্রক্রিয়ার অংশ হিসেবে ওই নোট বাতিল করা হয়েছিল। যাঁরা আসল নোটের প্রকৃত মালিক, তাঁরা ব্যাংকে নোট জমা দিয়ে বিনিময়ে সমপরিমাণ অর্থ নিয়েছিলেন। যদি চার মাস আগে ভারতের কেন্দ্রীয় ব্যাংক জানিয়েছে, প্রায় ৯৯ শতাংশ জাল ও কালো রুপি আবার বাজারে ঢুকে পড়েছে।

পিএনএস/জে এ

 

@PNSNews24.com

আপনার মন্তব্য প্রকাশ করুন
Developed by Diligent InfoTech