পাকিস্তানে এক শিশুকে ধর্ষণ করে হত্যার দায়ে এক যুবকের চার-দফা মৃত্যুদণ্ড

  

পিএনএস ডেস্ক : ৯ই জানুয়ারি লাহোরের কাছে কাসুর শহরে একটি আবর্জনার ভাগাড়ে ছয় বছরের শিশু জয়নব আসনারির মৃতদেহ পাওয়ার পর পাকিস্তান জুড়ে ব্যাপক জনরোষ তৈরি হয়েছিল।

পুলিশের 'অক্ষমতা'র বিরুদ্ধে শুরু হওয়া বিক্ষোভ দাঙ্গায় রূপ নিলে সেসময় দুজন নিহত হয়।

নৃশংস ঐ হত্যাকাণ্ডের দেড় মাসের মধ্যে পাকিস্তানের একটি আদালত আজ (শনিবার) ২৪ বছরের ইমরান আলিকে অপহরণের পর ধর্ষণ করে হত্যার দায়ে চার দফা মৃত্যুদণ্ড দেয়।

পুলিশ বলছে, ইমরান আলি এর আগেও ঐ এলাকায় অন্যান্য নারী শিশুকে ধর্ষণ ও হত্যায় জড়িত ছিল বলে তারা সন্দেহ করছে।

বিচারে ইমরান আলির বিরুদ্ধে অনেকে সাক্ষী দিয়েছে। ডিএনএ এবং পলিগ্রাফ পরীক্ষার ফলাফলও আদালতে হাজির করা হয়।

বিভিন্ন খবরে জানা গেছে, পুলিশের কাছে ধর্ষণ ও হত্যার কথা স্বীকার করার পর ইমরান আলি আইনজীবী মামলা লড়তে অস্বীকার করেন।

আপীল করার জন্য ইমরানকে ১৫ দিন সময় দেওয়া হয়েছে।

জয়নবের আগে কাসুর ও আশপাশে আরো কজন নারী শিশুর হত্যাকান্ডের সুরাহা না করতে পারায় পুলিশের ওপর ব্যাপক চাপ তৈরি হয়।

জয়নবের পরিবার অভিযোগ করেছে, তাদের মেয়ে উধাও হওয়ার পর থেকে তার মৃতদেহ পাওয়া পর্যন্ত পাঁচদিনে পুলিশ কিছুই করনে। এমনকি অন্তর্ধানের দিন জয়নবের সর্বশেষ গতিবিধির সিসিটিভি ফুটেজও জোগাড় করে তার স্বজনরা।

ঐ ফুটেজে দেখা যায় এক যুবক জয়নবকে নিয়ে হেঁটে যাচ্ছে। পুলিশ ইমরান আলিকে গ্রেপ্তার করে ২৩শে জানুয়ারি।

পিএনএস/জে এ /মোহন

 

@PNSNews24.com

আপনার মন্তব্য প্রকাশ করুন
Developed by Diligent InfoTech