ছেলেকে খুন করতে সুপারি দিল মা

  

পিএনএস ডেস্ক : সম্পত্তি নিয়ে বিবাদ৷ তার জেরে ছেলেকে খুন করার সুপারি দিল মা৷ তদন্তে নেমে রাজস্থান পুলিশ মা সহ চারজনকে গ্রেফতার করেছে৷

ঘটনাটি ৭ এপ্রিলের৷ ওই দিন জাতীয় সড়কের নিমবাহেডা রোডের কাছে একটি নির্জন জায়গায় একটি মৃতদেহ পড়ে থাকতে দেখে স্থানীয়রা৷ তারাই পুলিশকে খবর দেয়৷ তদন্তে নেমে পুলিশ জানতে পারে ওই দেহটি মোহিত নামে এক ধাবা মালিকের৷ এরপর তদন্তের গতিপ্রকৃতি যত এগোতে থাকে ততই অপরাধীদের নাগাল পেতে শুরু করে৷ এরপর ছেলেকে খুনের দায়ে মা প্রেম লতা সুথার ও তার জামাই কিষাণ সুথার সহ আরও দু’জনকে গ্রেফতার করে৷ তদন্তকারীরা জানতে পারেন নিজের ছেলেকে মারার জন্য বাকিদের সঙ্গে ষড়যন্ত্র করে এক কন্ট্রাক্ট কিলারকে এক লক্ষ টাকা দেয়৷

পুলিশের কাছে ওই মহিলা জানান, কয়েক বছর আগে তার স্বামী মারা গিয়েছে৷ তারপর থেকে ছেলে তার উপর খুব অত্যাচার করা শুরু করে৷ ছেলের অত্যাচার সহ্য করতে না পেরে মেয়ে ও জামাইয়ের কাছে চলে যান তিনি৷ প্রতাপনগর জেলায় তার চার বিঘা মত জমি আছে৷ তিনি মহাদেব নামে অন্যতম অভিযুক্তকে ওই জমি বিক্রি করতে চেয়েছিলেন৷ সেই পথে বাধা হয়ে দাঁড়ায় ছেলে মোহিত৷ ছেলের জন্য জমি বিক্রি করতে না পেরে তাকে খুন করার ষড়যন্ত্র করেন তারা৷

এই কাজে মদত জোগায় মহাদেব৷ সে গণপত সিং রাজপুত নামে এক কন্ট্রাক্ট কিলারের সঙ্গে যোগাযোগ করিয়ে দেয়৷ সিংকে প্রথমে ৫০ হাজার টাকা দেওয়া হয়৷ কাজ শেষ হয়ে যাওয়ার পর আরও ৫০ হাজার টাকা তাকে দেওয়া হবে বলে জানানো হয়৷ সেই মতো গত ৬ এপ্রিল মোহিত ধাবাতে খেতে গেলে গণপত তার খাবারে ঘুমের ওষুধ মিশিয়ে দেয়৷

এরপর আচ্ছন্ন অবস্থায় তাকে মদ্যপান করানো হয়৷ খাবার খেয়ে মোহিতকে নিজের বাইকে বসিয়ে জাতীয় সড়কের কাছে একটি নির্জন জায়গায় নিয়ে যাওয়া হয়৷ সেই সময় গণপতের এক শাগরেদও উপস্থিত ছিল৷ এরপর ঠাণ্ডা মাথায় তাকে খুন করা হয়৷ মোহিতকে খুন করার পর তারা দু’জনে ধাবায় ফিরে আসে এবং খাবারও খায়৷ পুলিশ মহাদেব ও তার শাগরেদকে গ্রেফতার করেছে৷ ধৃতরা পুলিশি জেরায় অপরাধ কবুল করেছে৷

পিএনএস/জে এ /মোহন

 

@PNSNews24.com

আপনার মন্তব্য প্রকাশ করুন
Developed by Diligent InfoTech