ট্রাম্পের নতুন কেচ্ছা

  


পিএনএস ডেস্ক: ১৯৯৩ সালের কথা। ডোনাল্ড ট্রাম্পের সঙ্গে তখন চুটিয়ে প্রেম করছেন মার্লা ম্যাপলস। একই সময়ে ট্রাম্প যৌন সম্পর্ক গড়ে তুলেছিলেন প্লেবয় ম্যাগাজিনের তারকা বারবারা মুর-এর সঙ্গে। পরে বারবারার হৃদয় ভেঙে মার্লা ম্যাপলকে দ্বিতীয় স্ত্রী হিসেবে বিয়ে করেন ট্রাম্প। অভিযোগ, ওই বছর মার্চ থেকে সেপ্টেম্বর পর্যন্ত বারাবারা ডোনাল্ড ট্রাম্পের একাধিকবার শয্যা সঙ্গিনী হয়েছেন। নিজেই এসব কথা সাক্ষাৎকারে বলেছেন তিনি। লন্ডনের ডেইলি মেলকে দেওয়া এক সাক্ষাতকারে এসব তথ্য ফাঁস করেছেন বারবারা। প্লেবয়ের প্রাক্তন তারাকা ক্যারেন ম্যাকডুগাল প্রেসিডেন্ট ডোনাল্ড ট্রাম্পের বিরুদ্ধে মামলা করেছেন। তাতেও ম্যাকডুগাল বারবারার নাম উল্লেখ করেছেন। এর পরিপ্রেক্ষিতেই মিডিয়ার চাপাচাপিতে মুখ খুললেন প্লেবয় ম্যাগাজিনের তারকা বারবারা মুর।

বারবারা অভিযোগ তুলে বলেছেন, ওই সময় ট্রাম্পকে কিছুতেই থামানো যায়নি। বারবারার বন্ধুবান্ধবীদের সামনেই ট্রাম্প তার সঙ্গে যৌন সম্পর্ক করে গিয়েছেন। তিনি বলেছেন, ‘১৯৯২ সালের ডিসেম্বরে বারবারা মুরকে আমন্ত্রণ জানানো হয় প্লেবয় ম্যাগাজিনের একটি ফ্যাশন শো করার জন্য। স্থানটি ছিল ট্রাম্পের ক্যাসেল ক্যাসিনো হোটেল। বর্তমানে সেটি নিউ জার্সির আটলান্টিক সিটিতে গোল্ডেন নাগেট হোটেল নামে পরিচিত। সেখানে যাওয়ার পরই ধনকুবের ট্রাম্প তাকে চমকে দেয়ার চেষ্টা করেন। ট্রাম্প বলেন, আপনাকে সত্যিই সুন্দরী দেখাচ্ছে।’ এই সময় বারবারা মুরের ক্যারিয়ারের প্রতি আগ্রহ প্রকাশ করেন ট্রাম্প। ওই রাতেই তারা একসঙ্গে সময় কাটান। তখন বারবারা মুরের বয়স ২৪ বছর। কয়েক সপ্তাহ পরে ট্রাম্প উড়ে গেলেন মার এ লাগোতে। সেখানেও বারবারার সঙ্গ ভোগ করেন পাঁচ রাত। এরপর বারবারা মুরকে আমন্ত্রণ জানানো হয় ট্রাম্প টাওয়ারে। বারবারার দাবি, সেখানেও ট্রাম্প তার সঙ্গে যৌন সম্পর্ক স্থাপন করেন, যা তার এক বন্ধু দাঁড়িয়ে প্রত্যক্ষ করেছিল। ওই সময় ট্রাম্পের প্রেমিকা মারিয়া ম্যাপল যে অন্তঃসত্ত্বা ছিলেন তা জানতেন না বারবারা।

তবুও ট্রাম্পকে একজন মহৎ প্রেমিক, বড় মাপের একজন প্রেসিডেন্ট হিসেবে দেখেন বারবারা। সাক্ষাৎকারে তিনি স্মরণ করেন, কিভাবে ট্রাম্পের দ্বিতীয় স্ত্রী মার্লা ম্যাপলের চোখ ফাঁকি দিয়ে মার এ লাগো ও ট্রাম্প টাওয়ারে শরীরের রঙ্গলীলায় মেতে উঠেছিলেন। বারবারা ডেইলি মেলকে বেশ কিছু ছবি দিয়েছেন। তাতে তাকে বিকিনি পরা অবস্থায় দেখা যায়। দেখা যায় প্রেসিডেন্ট ট্রাম্পের বেসরকারি বাসভবন মার এ লাগোতে। সেখানে সুইমিংপুলে ব্যায়াম করছেন প্রেসিডেন্ট সে ছবিও রয়েছে বারবারার ঝুলিতে। তিনি ডেইলি মেলকে বলেছেন, ১৯৯৩ সালের মার্চ থেকে সেপ্টেম্বর পর্যন্ত ছয় মাস আমি চুটিয়ে প্রেম করেছি ডোনাল্ড ট্রাম্পের সঙ্গে। এটা ছিল এক অবাধ সম্পর্ক। তিনি ছিলেন এক মহান প্রেমিক। তখনও বারবারা জানতে পারেননি যে, তিনি মার্লা ম্যাপলের সঙ্গে এনগেজড। ‘আমি সম্প্রতি জানতে পারি ওই সময় মার্লা ছিলেন অন্তঃসত্ত্বা। বিষয়টা আমার কাছে হতাশার মনে হয়েছে। এ জন্য আমি ট্রাম্পকে দোষ দিতে পারি না।’ বারবারার এই সব অভিযোগের জবাব পেতে হোয়াইট হাউসের সঙ্গে যোগাযোগ করে ডেইলি মেল। হোয়াইট হাউস জানিয়েছে, প্রেসিডেন্ট জানিয়েছেন এসব মিথ্য অভিযোগ।

বিলিয়নিয়ার ট্রাম্পের সঙ্গে নিউ জার্সির আটলান্টিক সিটিতে ট্রাম্পের ক্যাসেল ক্যাসিনো হোটেলে প্রথম সাক্ষাৎ হয় বারবারার। ‘সেখানে পার্টি শেষে সবাই একটি রুমে গিয়ে হাজির হন। সেটা ছিল ককটেল পার্টি। সেকানে পিয়ানিস্ট ছিলেন। ওই রুমের ভিতরে আমরা যা খুশি তাই করেছিলাম। তবে ডোনাল্ডের চোখে চোখ পড়ার কথা আমি স্মরণ করতে পারি। আমার মনে হয়েছিল বিদ্যুৎ স্ফুলিঙ্গ আমাকে স্পর্শ করল। তাৎক্ষণিকভাবে আমি তার প্রেম পড়ে যাই।’

পিএনএস/আনোয়ার

 

@PNSNews24.com

আপনার মন্তব্য প্রকাশ করুন
Developed by Diligent InfoTech